আফগানে ইসলামি শক্তির বিজয়; সবার জন্য আনন্দের: আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ

একুশে জার্নাল ডটকম

একুশে জার্নাল ডটকম

আগস্ট ২২ ২০২১, ০৮:২৬

আফগানে সম্মিলিত ইসলামী শক্তি একটি বাতিল শক্তির উপর জয় লাভ করেছে, এটা আমাদের সবার জন্য আনন্দের বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামার চেয়ারম্যান, ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহের গ্র্যান্ড ইমাম, শাইখুল ইসলাম আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ।

তিনি বলেন, তারা তাদের দেশকে অন্য দেশের হাত থেকে রক্ষা করেছে, নিজেরা স্বাধীন হয়েছে। এই বিষয়ে আমরা তাদের শতভাগ সমর্থন করি। এটি আমাদের দেশের মুক্তিযুদ্ধের মতো।

ভারত যদি বাংলাদেশে আক্রমন করে আমরা কী বসে থাকবো? যত বড় সাম্রাজ্যবাদী শক্তিই হোক,তাদের বিরোদ্ধে দেশ রক্ষায় ৭১সালের মতো আমরা জীবনবাজি রেখে লড়াই করবো। আমেরিকার দখলদারিত্বে বিরোদ্ধে মুজাহিদদের এই লড়াই স্বাধীকারের আন্দোলন ছিল। তাদের বিজয়কে আমরা অভিবাদন জানাই।

আল্লামা মাসঊদ বলেন, তবে তারা ইকামাতে দীনের নামে কীভাবে দেশ পরিচালনা করে, তাদের প্রক্রিয়া কী হয়, সেটা আমরা সামনে দেখবো, সেই অপেক্ষায় আছি। জোর- জবরদস্তি মাধ্যমে কখনোই দীন ইসলামকে কায়েম করা যায় না। দীন কায়েম করতে হয় নবীজী মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সুন্নাতকে জিন্দা করার মাধ্যমে। খেদমত দিয়ে নবীরা কাজ শুরু করতেন,আর দাওয়াতের মাধ্যমে তাকে প্রতিষ্ঠিত করতেন। তারা কতোটা জনগনের খেদমত এবং দাওয়াতের মাধ্যমে দীনকে মানার যোগ্যতা তৈরী করে রাষ্ট্র পরিচালনা করবে এটি মুসলিম বিশ্ব ও সারা দুনিয়া এখন দেখবে।

শনিবার (২১ আগস্ট) রাজধানীর খিলগাঁও, চৌধুরিপাড়ায় বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামা ঢাকা মহানগরী আয়োজিত আলোচনা ও পরামর্শ সভায় এসব কথা বলেন, ফিদায়ে মিল্লাত মাওলানা সাইয়্যিদ আসআদ মাদানী (রহ.) এর এই খলিফা আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ।

দীন ইসলাম আমার সমঝের নাম নয়, দীন ইসলাম সুন্নাতের উপর চলার নাম মন্তব্য করে বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামার চেয়ারম্যান বলেন, দীন ইসলাম কায়েমের নামে খোদ কওমি মাদরাসার অনেকেও সমাজে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। তারা নিজেদের সমঝকে দীন মনে করে কাজ করছে। অথচ দীন কখনোই আমার সমঝের নাম নয়। দীন নবীজীর সুন্নাত বাস্তবায়ন করা নাম। দ্বীন বিস্তার করতে হবে নবীজী ও সাহাবায়ে কেরামের আনুগত্য করে। পরিপূর্ণ ইতাআত ছাড়া কখনো ব্যাক্তি সমাজ পরিবার ও রাষ্ঠিয় জীবনে দীন প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব নয়।

ব্যক্তি, সমাজ, রাষ্ট্র ও বিশ্বকে নিয়ে ইসলাম একটি সামগ্রিক জীবন ব্যবস্থা উল্লেখ করে ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহের গ্র্যান্ড ইমাম বলেন, হীন স্থান বাথরুম থেকে নিয়ে সর্বোচ্চ স্থান দেশ পরিচালনা পর্যন্ত কীভাবে কী করতে হবে, সবকিছুর নির্দেশনা ইসলামে আছে। এজন্য সর্বক্ষেত্রে নবীজীর সুন্নাতকে জিন্দা করা চেষ্টা করলে দীন ইসলাম একদিন ঠিকই কায়েম হয়ে যাবে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামার সকল নেতা, কর্মী ও সদস্যের আত্মশুদ্ধির মেহনত করতে হবে। ওয়াজের দ্বারা নয়, জীবন গঠন হবে জিকিরের দ্বারা। সর্ববস্থায় ঘরে বাইরে জিকিরের ইহতেমাম করা। বাতাসে আল্লাহর জিকিরের আওয়াজ বুলন্দ করা, সমাজে নবীজীর সুন্নাত বাস্তবায়ন করা ও সাহাবায়ে কেরামের অনুসরণ করার আহ্বান জানান আল্লামা মাসঊদ।