সুনামগঞ্জে সাদপন্থী ও হিযবুত তাওহীদের ষড়যন্ত্রের শিকার শায়খ আনোয়ার হোসাইন

একুশে জার্নাল ডটকম

একুশে জার্নাল ডটকম

অক্টোবর ২০ ২০১৯, ১৪:১৫

কুতবে বাঙ্গাল হযরত মাওলানা আমিন উদ্দীন শায়খে কাতিয়া রহঃ’র অন্যতম খলীফা,সুনামগঞ্জের প্রখ্যাত আলেম মাওলানা শায়খ আনোয়ার হোসাইনের বিরুদ্ধে একটি চিহ্নিত মহল অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে বলে দাবি করা হয়। জানাগেছে,সুনামগঞ্জের কতিপয় সাদপন্থী ও হিযবুত তাওহীদের সদস্যদের ষড়যন্ত্রের শিকার মাওলানা আনোয়ার হোসাইন। একই এলাকার বাসিন্দা মাওলানা রেজওয়ান আহমদ জানান, কর্মজীবনের শুরু থেকে নিয়ে আজ পর্যন্ত মাওলানা আনোয়ার হোসাইন দাওয়াতে তাবলীগের কাজে সময় অর্ব্যাথ ব্যায় করে যাচ্ছেন,আজ থেকে ৩২ বৎসর আগে তিনি সুনামগঞ্জ’র তেঘরিয়া বায়তুল মামুর জামে মসজিদের ইমাম ও খতীব হিসেবে নিয়োগ প্রাপ্তহন। আল্লাহপাকের অশেষ রহমতে মাওলানা অানোয়ার হোসাইন সাহেবের একান্ত চেষ্টা ও পরিশ্রমের ফলে এই তেঘরিয়া এলাকায় ইসলামের দুটি মারকাজ জামেয়া ইসলামিয়া হরমুজিয়া দারুল হাদিস তেঘরিয়া মাদরাসা ও হযরত আয়শা সিদ্দিকা রাঃ মহিলা মাদরাসা সুনামগঞ্জ প্রতিষ্ঠা হয়।নিজের প্রতিষ্ঠিত এই দু’টি মাদরাসার মুহতামিের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন তিনি।

চলমান ফেতনার সম্মুখীন

দীর্ঘদিন যাবৎ ভারতের মাওলানা সাদের বিভিন্ন বয়ান নিয়ে পৃথিবীব্যাপী তাবলিগ জামাতে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে।

বিতর্কিত মাওলানা সাদ বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জায়গায় কুরআন, হাদিস, ইসলাম, নবি-রাসুল ও নবুয়ত এবং মাসআলা-মাসায়েল নিয়ে আপত্তিকর বয়ান করেছেন। যার জন্য দারুল উলূম দেওবন্দ সহ বিশ্ব আলেমগণ সাদ সাহেবকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে বলেছেন। কিন্তু তিনি এখনো সমাধানে আসেন নি!

দাওয়াত-তাবলীগ বিষয়ে মাওলানা আনোয়ার হোসাইন সাহেবের মতের সাথে সাদপন্থীদের মতের ভিন্নতা দেখা দিয়েছে অনেক আগেই। একে কেন্দ্রকরে (কিছু লোকের প্ররোচনায়) মাওলানা আনোওয়ার সাহেবের মানহানি করার উদ্দেশ্যে সাদপন্থী ও হিযবুত তাওহিদের কিছু লোক বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় মিথ্যা ও বিভ্রান্তমূলক সংবাদ পরিবেশন করা হয়েছে বলে স্থানীয়রা জানান।

সাদপন্থীরা সুনামগঞ্জে তাদের ভ্রান্ত ইজতেমা মাওলানা আনোওয়ার সাহেবের কারণে করতে পারেনি এবং এবছর সুনামগঞ্জ নারায়ন তলাতে হিযবুত তাওহিদের তৎপরাতকে রুখে দেয়ায় ভ্রান্ত দুই দল একত্রিত হয়ে ষড়যন্ত্র লিপ্ত হয়েছে।

এলাকার কিছু লোককে নিয়ে ফেতনা চলমান রেখেছে তেঘরিয়া মহল্লা মসজিদেও..

অত্যন্ত দুঃখজনক বিষয় হলো যে, এলাকায় মসজিদের মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটির কয়েকজনকে সাথে নিয়ে সাদ পন্থীরা সুনামগঞ্জ’র তেঘরিয়া জামে মসজিদের ইমাম ও মুয়াজ্জিন সাহেবের খাবার বন্ধ করে দেয়ার খবর পাওয়াগেছে। এব্যাপারটি জানাজানি হলে এলাকার যুবকরা ক্ষুদ্ধ হয়ে অনেকই প্রতিবাদ জানান।

চলমান পরিস্থিতিতে উক্ত এলাকার বর্তমান কাউন্সিলর ও বর্তমান ভারপ্রাপ্ত প্যানেল মেয়র শামসুজ্জামান স্বপন পরিষ্কার বক্তব্য দিয়েছেন যে, মাওলানা আনোয়ার হোসাইন( বড় হুজুর) আমাদের এলাকার জন্য আশির্বাদ স্বরুপ।

হুজুর আসার আগে এই এলাকা অন্ধকার যুগের ভিতর ছিলো, মানুষ মদের মধ্যে ডুবে থাকতো, আজ যারা হুজুরের বিরুদ্ধে ও মাদরাসার বিরুদ্ধে কিছু মসজিদের কমিটির মেয়াদ উত্তীর্ণ লোক ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে আমরা এলাকার সকল যুবকরা তা প্রতিহত করতে প্রস্তত, হুজুর যেভাবে ৩২ বৎসর আগে এখানে এসেছিলেন বাকী জীবন ও সম্মানের সাথে থাকবেন ইনশাআল্লাহ।’

সকল আলেম উলামা ও ইসলমপ্রিয় জনতার প্রতি এই আহ্বান জানিয়েছেন স্থানীয়রা। মুসল্লীরা আরো জানান, ঈমানি দায়িত্ববোধ থেকে আপনারা হিযবুত তাওহীদ ও সাদপন্থীদের মিথ্যা ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদ করুন। পাশাপাশি দোয়া করুন,।মাওলানা আনোয়ার হোসাইন ও তাঁর প্রতিষ্ঠিত মাদরাসা গুলোকে সকল ষড়যন্ত্রের হাত থেকে আল্লাহপাক যেন হেফাজতে রাখেন।