সত্যনিষ্ঠ সাংবাদিক ছিলেন আতাউল হাকিম; শোকসভায় বক্তারা

একুশে জার্নাল ডটকম

একুশে জার্নাল ডটকম

আগস্ট ০৪ ২০১৯, ২৩:২১

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, উঁচুমাপের সত্যনিষ্ঠ সাংবাদিক ছিলেন আতাউল হাকিম। তিনি ড. মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ’র উদ্বৃত দিয়ে বলেন যে সমাজে গুণীজনের কদর হয়না সে সমাজে গুণীজন জন্ম নেয় না। তিনি বলেন, আমাদের সমাজ ব্যবস্থার একটি খারাপ দিক হল মৃত্যুর আগে গুণীজনের কদর হয়না মৃত্যুর পরই গুণীজনের কদর হয়। তিনি বলেন, নির্বোধ-বোধ, ন্যায়-অন্যায়, সত্য-মিথ্যার মধ্যে আমরা কোন পার্থক্য নির্ধারণ করতে পারি না। এর কারণ হল মোহ আমাদেরকে আচ্ছন্ন করে রেখেছে। তিনি আতাউল হাকিমের ভাল দিকগুলো অনুসরণ করার আহ্বান জানান।

আজ ৪ আগস্ট ২০১৯ রোজ রবিবার চট্টগ্রাম অনলাইন প্রেস ক্লাবের উদ্যোগে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব ও চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি আতাউল হাকিমের মৃত্যুতে শোকসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী উপরোক্ত অভিমত ব্যক্ত করেন।

চট্টগ্রাম নগরীর মোমিন রোডস্থ সুপ্রভাত স্টুডিও হলে অনুষ্ঠিত শোকসভায় সভাপতিত্ব করেন- সন্দ্বীপ অঞ্চলে শিক্ষার গুনগত মানোন্নয়নে অঙ্গীকারবদ্ধ সাপ্তাহিক আলোকিত সন্দ্বীপ পত্রিকার সম্পাদক অধ্যক্ষ মুকতাদের আজাদ খান।

শোকসভায় বিশেষ সম্মানিত অতিথির বক্তব্যে বিশ্ব প্রেস কাউন্সিলস্ নির্বাহী পরিষদ ও বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের সাবেক সদস্য, প্রবীণ সাংবাদিক নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মইনুদ্দীন কাদেরী শওকত বলেন, আধুনিক চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের রূপকার আতাউল হাকিম। তিনি সাহস করে সত্য বলতেন। আমরা ক্ষমতার উচ্ছৃষ্ট ভোগ করার জন্য জ্ঞানহীন হয়ে গেছি। চলমান অবস্থা থেকে উত্তরণে আতাউল হাকিমের মত সাহসী লোকদের সংগঠিত হওয়া প্রয়োজন। আমাদের আরো উদার হতে হবে। কেননা, সংকীর্ণতা নিয়ে কারো প্রশংসা করা যায় না। আমরা বক্তা এবং শ্রোতা হওয়ার যোগ্যতাও হারিয়ে ফেলেছি।

শোকসভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম কর আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট মনজুর মাহমুদ খান ও বিজয়’৭১ এর প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক লায়ন ডা. আর.কে রুবেল।

প্রধান আলোচক ছিলেন মোহনা টিভি চট্টগ্রাম বিভাগীয় ডেপুটি ব্যুরো চীফ আলী আহমদ শাহীন।

বক্তব্য রাখেন সাপ্তাহিক চট্টবাণী’র সম্পাদক নুরুল কবির, নাট্যজন সজল চৌধুরী, বঙ্গবন্ধু সমাজকল্যাণ পরিষদ চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সহ-সভাপতি জসিম উদ্দিন চৌধুরী, কলামিস্ট অধ্যক্ষ এম. সোলাইমান কাশেমী, দৈনিক রূপালী’র সাবেক স্টাফ রিপোর্টার তরুণ বিশ্বাস অরুণ, বঙ্গবন্ধু প্রজন্ম লীগ চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সহ-সভাপতি সালাউদ্দিন লিটন, জননেত্রী শেখ হাসিনা পরিষদ চট্টগ্রাম মহানগরের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক কে.এম নুরুল হুদা চৌধুরী, চাটগাঁ সময় ডটকম সম্পাদক এস.ডি জীবন।

আরও বক্তব্য রাখেন, বৃহত্তর চট্টগ্রাম উন্নয়ন সংগ্রাম কমিটি ফটিকছড়ি উপজেলা শাখার চেয়ারম্যান মুহাম্মদ হাসান সিকদার রাজা, অপরাধ বিচিত্রার বিশেষ প্রতিনিধি মো: কামাল হোসেন, সাংবাদিক যথাক্রমে এম. আনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী, আবদুল আজিজ ও হোসেন মিন্টু, মোরাপত্র লেখক সমাজের সভাপতি সজল দাশ, চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগের খালেদ মাহমুদ চৌধুরী টুটুল, দৈনিক আমার সংবাদ পত্রিকার সন্দ্বীপ প্রতিনিধি ইলিয়াছ সুমন, সাংবাদিক মোস্তাফিজুর রহমান, সুজন আচার্য, শিপক কুমার নন্দী প্রমুখ।

শোকসভা সঞ্চালনায় ছিলেন দৈনিক বিশ্ব মানচিত্রের প্রতিনিধি লায়ন আবু ছালেহ্।

দোয়া মাহফিলে মুনাজাত পরিচালনা করেন অধ্যক্ষ মাওলানা এম. সোলাইমান কাশেমী।

সভায় বিভিন্ন বক্তাগণ বলেন, সাংবাদিক আতাউল হাকিম জমিদার পরিবারে জন্মগ্রহণ করেও সততার কারণে কষ্টের জীবন কাটিয়ে দিয়েছেন। তিনি যে মান ও স্তরের সাংবাদিকতা করেছেন বর্তমানে তা বিরল। তিনি সত্যিকার সাংবাদিক ছিলেন। কাউকে কুর্নিশ এবং কারো উপর আক্রোশ চরিতার্থ করেননি বরং সবাইকে ভালবাসতেন। সবার মধ্যে মৈত্রী বন্ধন সৃষ্টি করতে চাইতেন।