শরীয়তপুরে ভয়ংকর ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের প্রভাব শুরু

একুশে জার্নাল

একুশে জার্নাল

মে ২০ ২০২০, ২২:২৮

ইয়ামিন কাদের নিলয়, শরীয়তপুর জেলা প্রতিনিধি: বাংলাদেশের দিকে ধেঁয়ে আসছে সুপার ঘূর্ণিঝড় আম্ফান।এরই মধ্যে দেশের বিভিন্ন এলাকায় সিডর কিংবা আইলার চেয়েও প্রলয়ংকারী এই ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবের সাথে শরীয়তপুর জেলায় এর প্রভাব দেখা দিয়েছে।

ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের প্রভাবে শরীয়তপুর জেলায় মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত আবহাওয়া ভালো থাকলেও বিকেল ৫টার পর থেকে আকাশ মেঘাচ্ছন্ন ও হালকা বাতাসের সাথে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি হতে শুরু করে। তবে আজ বুধবার শরীয়তপুর জেলার সদরে ও জাজিরা, নড়িয়া ভেদরগঞ্জ, ডামুড্যা, গোসাইরহাট উপজেলার ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের প্রভাবে দমকা ঝড়ো বাতাসের সাথে বৃষ্টির শুরু হয়েছে। পুরো আকাশ কালো মেঘে ঢেকে গেছে ধীরে ধীরে বাতাসের বেগ বেড়ে চলছে তার সাথে নদীর পানিও বৃদ্ধি পেয়েছে।

এদিকে ঘূর্ণিঝড়ের প্রকোপ থেকে জান-মাল রক্ষার্থে
আগাম প্রস্তুতি স্বরুপ শরীয়তপুর জেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে নানা পদক্ষেপ। বন্ধ রাখা হয়েছে সকল প্রকার নৌ-যান। খোলে দেওয়া হয়েছে আশ্রয় কেন্দ্রগুলো।

উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ডামুড্যা উপজেলার সহকারী কমিশনার(ভূমি)ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন,শরীয়তপুর জেলার বিভিন্ন উপজেলা ও ইউনিয়নে ঝড়বৃষ্টি শুরু হয়েছে। ঝড়ের আগে বৃষ্টি হবে- এটাই স্বাভাবিক। আগেও আমাদের ঝড় বৃষ্টির মধ্যে কাজ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে।

শরীয়তপুর জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মানুষদের নিরাপদে সরিয়ে নিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন ও আশ্রয় কেন্দ্রগুলো প্রস্তুত রাখা হয়েছে। ইতোমধ্যে ১ হাজার মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। দুর্যোগ পরবর্তী সময়ের জন্য উদ্ধারকাজে সহায়তা করতে সেনাবাহিনী, পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস, গ্রাম পুলিশ, সেচ্ছাসেবক টিম ও মেডিকেল টিম শরীয়তপুর জেলা প্রশাসনের নির্দেশে সকল উপজেলার প্রস্তুত রাখা হয়েছে ।