নেতা-কর্মী হত্যার প্রতিবাদে হাবিপ্রবি ছাত্রলীগের বিক্ষোভ

একুশে জার্নাল ডটকম

একুশে জার্নাল ডটকম

মার্চ ০৩ ২০২০, ২১:১৪

দিনাজপুর প্রতিনিধি

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ ও খুলনার কয়রা উপজেলার ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের ওপর সন্ত্রাসী হামলাও হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেছে দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ।

মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২ টায় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ নেতা মোরশেদুল আলম রনি,ধনেশ চন্দ্র পাল,রিয়াদ খান, সাজেদুর রহমান সৈকত,ইলিয়াস দেওয়ান ও শফিকুল ইসলাম সজল,মশিউর এর নেতৃত্বে প্রশাসনিক ভবনের সামনে থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়।মিছিলটি ক্যাম্পাসের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় প্রশাসনিক ভবনের সামনে এসে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। মিছিলে অংশগ্রহণ করেন গোলাম সারোয়ার ফরহাদ,মাসুদ রানা মিঠু,রঙ্গন,সরোয়ার জাহান, রাশেদুন্নবী রাশেদ,জাহিদ শিহাব,নাজমুল হুদা, বায়েজিদ,ইসলাম, মোস্তাফিজার রহমান মুন্না, জুয়েল রানা, জনি, সিয়াম মাহমুদ মুন্না, মিজান, মেহেদী,বকুল, দিপু, জুয়েল,অর্পন, মুঈন, মুরসালিন বাপ্পী,কাওসারসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হল শাখা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীবৃন্দ।এসময় ছাত্রলীগ কর্মীরা জামাত-শিবির রাজাকার এই মুহুর্তে বাংলা ছাড়, একটা-একটা শিবির ধর,ধইরা ধইরা জবাই কর;শিবিরের চামড়া,তুলে নিবো আমরা’ ইত্যাদি স্লোগান দিতে থাকেন।

সমাবেশে বক্তারা বলেন,স্বাধীনতা বিরোধী কুচক্রী মহল দিন-দুপুরে ছাত্রলীগের কর্মীদের ওপর হামলা চালিয়ে আমাদের সহযোদ্ধা ভাইদের মেরে ফেলেছে। আমরা এ হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।‘নোয়াখালী বেগমগঞ্জের ছাত্রলীগ নেতা রাকিব ও খুলনা কয়রা উপজেলার সাধারণ সম্পাদক হাদিউজ্জামান রাসেলের হত্যার সাথে যারা জড়িত রয়েছে তাদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে বিচার করতে হবে এবং বাংলাদেশে ছাত্র শিবিরের রাজনীতি চিরতরে বন্ধ করে দিতে হবে। বিচার না হওয়া পর্যন্ত বাংলাদেশ ছাত্রলীগ রাজপথে থাকবে। বাংলাদেশে রাজাকার,মৌলবাদ এবং সন্ত্রাসবাদের কোন স্থান হবে না। শরীরে একবিন্দু রক্ত থাকতে আমরা এদেশে জঙ্গিবাদের উত্থান হতে দেবো না।

প্রসঙ্গত, রোববার রাত ৮টার দিকে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জেন ১ নম্বর আমানউল্লাহপুর ইউনিয়নের পলোয়ান বাজারে ছাত্র শিবিরের এলোপাতাড়ি গুলিতে ছাত্রলীগের পাঁচজন গুলিবিদ্ধ হন। তাদের মধ্যে ছাত্রলীগ কর্মী রাকিব নিহত হন। অন্যদিকে খুলনা জেলায় অন্তর্গত কয়রা উপজেলায় সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছেন উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হাদীউজ্জামান রাসেল। উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় আনার পথে তার মৃত্যু হয়।