ডিবি পরিচয়ে মাদরাসাছাত্রকে গুম,পুলিশের দ্বারস্থ হয়েও মিলছে না কোনো খোঁজ

একুশে জার্নাল ডটকম

একুশে জার্নাল ডটকম

অক্টোবর ২০ ২০১৯, ১৫:০২

চার দিন ধরে নিখোঁজ তরুণ এক মাদরাসাছাত্র। চরম উৎকণ্ঠা ও পেরেশানিতে সময় পার করছে তাঁর পরিবার। নিখোঁজ ওই মাদরাসাছাত্রের নাম শাহাদাত হোসাইন (২৪)। যশোর সদর উপজেলার কামালপুর গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে। কওমি মাদরাসায় দাওরা ও ইফতা শেষ করে চট্টগ্রামের ওমর ফারুক ইসলামিয়া মাদরাসায় উলুমুল হাদিস বিষয়ে এ বছর অধ্যয়নরত ছিলেন।

তাঁর বড়ভাই মোশাররফ হোসেন গণমাধ্যমকে জানান, গত ১৬/১০/২০১৯ তারিখে যশোর থেকে রাত ৮ টার গাড়ীতে করে চিটাগং যাওয়ার পথে ৪/৫ জন লোক ডিবি পুলিশের পরিচয় দিয়ে তাকে গাড়ী থেকে নামিয়ে নিয়ে যায়, এরপর থেকে এখন পর্যন্ত তার কোনো সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না।

শাহাদাতের বড়ভাই মোশাররফ হোসেন বলেন, ঘটনার পর আমার বৃদ্ধ মা-বাবা কান্না করতে করতে অসুস্থ হয়ে পড়েছে এবং আমরা চরম উৎকন্ঠায় সময় পার করছি। কোথাও তাঁর সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না।

গাড়ীর সুপার ভাইজারের তথ্য মতে- চিটাগং যাওয়ার পথে কাঁচপুর ব্রিজের নিকটে গেলে ৪/৫ জন ডিবি পোশাক ধারী লোক গাড়ীতে উঠে যাত্রীদের বিভিন্ন প্রশ্ন করতে থাকে, তার কাছে বিভিন্ন প্রশ্ন করতে থাকলে সে ভয় পেয়ে যায় তখন তারা তাকে গাড়ী থেকে নামিয়ে নিয়ে যায় ও তারা ডিবি বলে পরিচয় দিয়ে গাড়ি ছেড়ে দিতে বলে।

শাহাদাতের আত্মীয়-স্বজন জানান, আমরা নারায়নগঞ্জ এর বিভিন্ন থানা ও ডিবি কার্যালয় এ যোগাযোগ করলে তারা কোন সন্ধান দিতে পারেনি।শাহাদতের বড় ভাই আরো বলেন আমরা থানায় জিডি করতে চাচ্ছি কোন থানায় আমাদের জিডি নিচ্ছে না। পুলিশ বলেন, সে কোন রাজনৈতিক বা অরাজনৈতিক সংগঠনের সাথে প্রতক্ষ্য ও পরোক্ষ্যভাবে জড়িত কি না।বড় ভাই মোশারফ হোসেন বলেন আমাদের জানামতে সে কোন রাজনৈতিক সংগঠনের সাথে জড়িত নয়।

পরিবারের আর্তনাদ যদি সহৃদয়বান কোন ব্যক্তির চোখে শাহাদাতকে পড়ে শাহাদাতের বড় ভাই মোশারফ হোসেন এর সাথে যোগাযোগ করতে পারেন মোবাইল ০১৯১৩ ৫৫৩৮৬৬ মোশারফ হোসেন বলেন আমরা আপনাদের কাছে চির কৃতজ্ঞ থাকব।

-বিজ্ঞপ্তি