চরফ্যাশন ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বন্ধ হলো বাল্যবিবাহ

একুশে জার্নাল ডটকম

একুশে জার্নাল ডটকম

মার্চ ১০ ২০২০, ১৩:৫৬

ভোলার চরফ্যাশনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহের হাত থেকে রক্ষা পেলো অষ্টম শ্রেণীর এক ছাত্রী। সোমবার (৯মার্চ) উপজেলার হাজারিগঞ্জ ইউনিয়নের বাসিরদোন এলাকায় ওই ছাত্রীর বাড়িতে বিয়ের পূর্ব মূহুর্তে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রুহুল আমিনের হস্তক্ষেপে বিয়ে বন্ধ করা হয়।

এসময় জাল জন্ম সনদের মাধ্যমে বয়স বাড়িয়ে মেয়েকে বাল্য বিবাহ দেওয়ার প্রস্তুতি নেওয়ার দায়ে ওই ছাত্রীর পিতা মোঃ তাজল ইসলামকে আটক করে উপজেলায় নিয়ে আসা হয়। নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, স্থানীয় এলাকাবাসী ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিয়ে বাল্য বিবাহের কথা জানালে তিনি বার্তা পান। পরে স্থানীয় চেয়ানম্যানের মাধ্যমে বিয়ের অনুষ্ঠান বন্ধ করে কনে ও তার পিতাকে উপজেলায় নিয়ে আসা হয় এবং চেয়ারম্যানের জিম্মায় ১৮ বছরের পূর্বে বিয়ে দেওয়া হবেনা মর্মে লিখিতভাবে মুচলেকার মাধ্যমে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়।