কুড়িগ্রামে বাস ও প্রাইভেটকারের সংঘর্ষে একই পরিবারের ৩ জনসহ নিহত ৪

একুশে জার্নাল

একুশে জার্নাল

আগস্ট ১৩ ২০২০, ১৬:০০

রোকন , কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি :

কুড়িগ্রামের কাঁঠালবাড়ি ইউনিয়নে কুড়িগ্রাম-রংপুর মহাসড়কে প্রাইভেটকার ও বিআরটিসি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়েছে। এতে একই পরিবারের তিন জনসহ চারজন নিহত হয়েছেন। এছাড়াও আহত হয়েছেন ‌শিশুসহ আরও দুই জন। বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) সকাল সোয়া ৭টার দিকে মহাসড়কের রায়পুর আরডিআরএস বাজার এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

কুড়িগ্রাম সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আনোয়ারুল ইসলাম ও কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. মেহেরুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
নিহতরা হলেন প্রাইভেটকারের যাত্রী মজিবুর রহমান (৫৫), তার স্ত্রী বিলকিস ‌বেগম (৪৫), ছেলে বিল্লাল হোসেন (২৫) ও প্রাইভেটকারের ড্রাইভার (নামঃ মো. সোহেল।পিতা মৃত,সায়েদআলি, গ্রামঃ চকমাধবদী,৫ নং ওয়ার্ড, মনোহরদী পৌরসভা মনোহরদী,নরসিংদী।)। আহত হয়েছে মজিবুরের সন্তান জয়নব (৯) ও ড্রাইভারের সহকারী। ড্রাইভারের সহকারীর অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার সকালে কাঁঠালবাড়ি ইউনিয়নের রায়পুর আরডিআরএস বাজার এলাকায় কুড়িগ্রাম-রংপুর মহাসড়কে কুড়িগ্রাম থেকে ছেড়ে যাওয়া বিআরটিসি’র একটি বাসের সঙ্গে কুড়িগ্রামগামী একটি প্রাইভেটকারের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই প্রাইভেটকারের ড্রাইভারের মৃত্যু হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় প্রাইভেটকারের পাঁচ যাত্রীকে উদ্ধার করে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক বিল্লাল হোসেন নামে একজনকে মৃত ঘোষণা করেন।

হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মেহেরুল ইসলাম জানান, হাসপাতালে আনার আগেই বিল্লাল হোসেন ও প্রাইভেটকারের ড্রাইভার মারা যান। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মজিবুর রহমান ও বিলকিস বেগমের মৃত্যু হয়। আহত একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হতে পারে।

আহতের বরাত দিয়ে এই চিকিৎসক জানান, প্রাইভেটকারের যাত্রীরা নরসিংদী থেকে কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার বুড়াবুড়ি ইউনিয়নে আত্মীয়ের বাড়িতে যাচ্ছিলেন।