ফাঁকা স্থানে বাবরি মসজিদ নির্মিত হয়নি: সুপ্রিম কোর্ট

একুশে জার্নাল

একুশে জার্নাল

নভেম্বর ০৯ ২০১৯, ১২:৫৫

ভারতের বহুল আলোচিত বাবরি মসজিদ মামলার রায় ঘোষণা শুরু করেছে সুপ্রিম কোর্ট। রায় ঘোষণা করতে গিয়ে ভারতীয় সর্বোচ্চ আদালত বলেছেন, কোনও ফাঁকা স্থানে এই মসজিদ নির্মিত হয়নি। পুরাতাত্ত্বিক খননে পাওয়া নিদর্শন অনুযায়ী সেখানে অনৈসলামিক উপাদান পাওয়া গেছে। তবে সেই উপাদানগুলো যে রামমন্দিরের তা, নিশ্চিত নয়।

স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১০টায় (বাংলাদেশ সময় সকাল ১১টা) মামলার রায় পড়তে শুরু করেছে দেশটির সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বাধীন পাঁচ সদস্যের বেঞ্চ।

ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের বরাত দিয়ে এনডিটিভি জানিয়েছে, অযোধ্যা বাবরি মসজিদ মামলার পুরো রায় পড়তে আধঘন্টা সময় লাগবে।

প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বাধীন পাঁচ বিচারপতির সাংবিধানিক বেঞ্চ রায় ঘোষণার এক পর্যায়ে বলেছেন,  হিন্দুরা বিশ্বাস করেন এখানেই রামের জন্মভূমি ছিল। তবে কারও বিশ্বাস যেন অন্যের অধিকার না হরণ করে। আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অব ইন্ডিয়ার (এএসআই)  খননের ফলে যে সব জিনিসপত্র পাওয়া গেছে,  তাতে স্পষ্ট যে সেগুলি অনৈসলামিক। তবে এএসআই এ কথা বলেনি, যে তার নীচে মন্দিরই ছিল ।

বিচারপতি বলেছেন, এলাহাবাদ হাইকোর্টের রায় যুক্তিযুক্ত ছিল। রায়ে প্রধান বিচারপতি  বলেছেন, বাবরের সহযোগী মির বাকি মসজিদ তৈরি করেছিলেন, তবে কবে মসজিদ তৈরি হয়েছিল, সেটা গুরুত্বপূর্ণ নয়।

শুক্রবার সন্ধ্যায়, প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈসহ বাকি চার বিচারপতি সিদ্ধান্ত নেন, রায়দান করা হবে শনিবার। ঘটনাকে কেন্দ্র করে যাতে কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে, তারজন্য কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা মোতায়েন করা হয়েছে।

ঐতিহাসিক এই মামলার রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে বেশ সতর্ক অবস্থানে রয়েছে প্রশাসন। এর মধ্যেই ভারতের উত্তরপ্রদেশে জারি করা হয়েছে ১৪৪ ধারা।

বহুল আলোচিত ও প্রায় সাত দশকের পুরোনো অযোধ্যার বাবরি মসজিদের ভূমির মালিকানা মামলার রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে ভারতের উত্তরপ্রদেশে বেশ উত্তেজনা তৈরি হয়েছে।

ইতোমধ্যে অতিরিক্ত চার হাজার সেনা মোতায়েন করা হয়েছে উত্তরপ্রদেশে। ৭৮টি রেল স্টেশনের নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে। বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে উত্তরপ্রদেশের সব স্কুল-কলেজ।