সিলেটের প্রাচীন স্থাপনা আবু সিনা ছাত্রাবাস রক্ষায় প্রতিবাদী অবস্থান

একুশে জার্নাল

একুশে জার্নাল

এপ্রিল ৩০ ২০১৯, ২৩:২৬

সিলেট প্রতিনিধি: রাজনৈতিক ফায়দালোভীদের হাতে সিলেটের ইতিহাস ও ঐতিহ্য বিপন্ন হওয়ার পথে বলে অভিযোগ করেছেন সিলেটের সচেতন নাগরিকরা। সিলেটের দেড়শ’ বছরের ঐতিহাসিক স্থাপনা আবু সিনা ছাত্রাবাস সংরক্ষণের দাবিতে ঐক্যবদ্ধ নাগরিক সমাজ আয়োজিত প্রতিবাদী অবস্থান কর্মসূচিতে বক্তারা এসব কথা বলেন। এ সময় তারা বলেন, অব্যাহত নাগরিক আন্দোলনের মাধ্যমে ঐতিহ্য সংরক্ষণ করতে হবে। অবস্থান কর্মসূচি থেকে সিলেটের আবু সিনা ছাত্রাবাস রক্ষাসহ সিলেট নগর, বিভাগের চার জেলার শত বছরের ইতিহাস-ঐতিহ্য রক্ষায় যুগপৎ সামাজিক আন্দোলন অব্যাহত রাখার প্রত্যয় ঘোষণা করা হয়। সিলেট নগরকে যানজটমুক্ত রাখতে কেন্দ্রস্থল এলাকায় বহুতলবিশিষ্ট একটি হাসপাতাল নির্মাণকে ‘এথিক সেন্স’ বিহীন কাণ্ড অভিহিত করে নির্মাণাধীন জেলা হাসপাতাল সিলেট নগরের ‘রোগীবান্ধব’ যে কোনো এলাকায় স্থানান্তর করার দাবি জানানো হয়। সোমবার বিকাল ৪টা থেকে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে একটানা আড়াই ঘণ্টা চলা প্রতিবাদী অবস্থানে সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেটের প্রথম বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় লিডিং ইউনিভার্সিটির স্থাপত্য বিভাগের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা একাত্ম হন। পাশাপাশি সিলেটের প্রগতিশীল রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ পেশাজীবীরা সংহতি জানিয়ে অবস্থান কর্মসূচিতে অংশ নেন।

সিলেটের ঐতিহ্য সংরক্ষণে ঐক্যবদ্ধ নাগরিক সমাজ মুখপাত্র মোস্তাফা শাহজামান চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রতিবাদী অবস্থান কর্মসূচির শুরুতে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) সিলেটের সাধারণ সম্পাদক আবদুল করিম কিম। এরপর প্রতিবাদী অবস্থান কর্মসূচি প্রেক্ষাপট তুলে ধরে বক্তব্য দেন সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এমাদ উল্লাহ শহিদুল ইসলাম।

প্রতিবাদী অবস্থানে অংশগ্রহণ করেন, মেজর জেনারেল (অব.) আজিজুর রহমান বীর উত্তম, কর্নেল (অব.) মো. আবদুস সালাম বীরপ্রতীক, সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার বাস্তবায়ন কমিটির সংগঠক মুক্তিযোদ্ধা সদরউদ্দিন আহমদ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সিলেটের সাবেক কমান্ডার সুব্রত চক্রবর্তী, কবি ও গবেষক সৈয়দ মবনু।