হিজাব পরে ক্লাসে যেতে পারবে না মুসলিম শিক্ষার্থীরা

একুশে জার্নাল ডটকম

একুশে জার্নাল ডটকম

মার্চ ১৫ ২০২২, ১৩:০৯

ছবি: এনডি টিভি

কর্ণাটকের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে হিজাব নিষিদ্ধের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের হতাশ করেছেন কর্ণাটক হাইকোর্ট। মঙ্গলবার (১৫ মার্চ) আদালত জানায়, হিজাব একটি অপরিহার্য ধর্মীয় পোশাক নয়। এটিকে ক্লাসে হিজাব পরার নিষেধাজ্ঞাকে চ্যালেঞ্জ করে আবেদন করা শিক্ষার্থীদের জন্য বড় ধাক্কা হিসেবে দেখছেন অনেকে। খবর এনডিটিভির।

এই রায়কে কেন্দ্র করে রাজ্য সরকার ‘শান্তি ও শৃঙ্খলা বজায় রাখতে’ রাজ্যের রাজধানী বেঙ্গালুরুতে এক সপ্তাহের জন্য বড় জমায়েত নিষিদ্ধ করে। ম্যাঙ্গালোরেও ১৫ থেকে ১৯ মার্চ পর্যন্ত বড় জমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়েছে। উদুপি জেলা প্রশাসন আজ স্কুল ও কলেজগুলো ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

এর আগে গত মাসে অস্থায়ীভাবে হিজাব এবং গেরুয়া স্কার্ফসহ ধর্মীয় পোশাক নিষিদ্ধ করেছিলেন কর্ণাটক হাইকোর্ট। কারণ হিজাব বিতর্ক বিক্ষোভে পরিণত হয়েছিল এবং শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন অংশ মুখোমুখি হয়ে গিয়েছিল।

হিজাব নিষিদ্ধের বিরুদ্ধে আবেদনকারীদের মধ্যে এক ডজন মুসলিম শিক্ষার্থীও ছিলেন। তারা আদালতকে বলেছিলেন যে হিজাব পরা ভারতের সংবিধান এবং ইসলামের অপরিহার্য অনুশীলনের অধীনে নিশ্চিত করা একটি মৌলিক অধিকার।

প্রসঙ্গত, গত ৫ ফেব্রুয়ারি কর্ণাটক সরকার ‘আইন শৃঙ্খলাবিরোধী পোশাক’ নিষিদ্ধ করে। পরে ১০ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্ট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অস্থায়ীভাবে সব ধর্মীয় পোশাক নিষিদ্ধ করেছিলেন।