সিংগাইরের জামশায় থামছে না জনসমাগম

মিলন মাহমুদ (মানিকগঞ্জ) : মানিকগঞ্জ- সিংগাইরের দক্ষিণ জামশা বাজারে এখনও থামছে না জনসমাগম। স্বাভাবিকভাবেই চলছে জনগণের অবাধ বিচরণ।

বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাসের যে ভয়াবহ বিস্তার তা যেন এ গ্রামের মানুষগুলোকে একটুও আতংকিত করছে না।

এ সামাজিক মানুষগুলো যেন কিছুতেই সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে পারছে না।

উপজেলা প্রশাসন ও জামশা ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ হতে বার বার সচেতন করার পরও তারা অবাধে চলাচল করছে।

প্রতিদিন সকালে মিলছে বাজার ও সাপ্তাহিক হাটও বসছে শনিবার ও মঙ্গলবারে যেখানে শত শত মানুষের জনসমাগমের সৃষ্টি হচ্ছে।

উল্লেখ্য যে গত মঙ্গলবার উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুনা লায়লার নেতৃত্বে বাজারের প্রয়োজনীয় দোকান (ফার্মেসি,মুদি ও কাচামাল) ব্যাতিত সকল দোকান বন্ধ করে দেয়া হয় এবং সচেতনতা মূলক মাইকিং করা হয়।

নিয়মিত প্রশাসন ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সদস্যবৃন্দ তাদের দ্বায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করে আসছে।

তবুও জনগণের মনে যেন একটুও আতংকের ছাপ নেই।প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে তারা আগের মতই আড্ডাবাজি, মাস্ক ছাড়া অবাধ চলাচল,যেখানে সেখানে হাঁচি -কাশি, হাসি-ঠাট্টা রঙ্গরসে মেতে আছে,মানছে না সামাজিক দূরত্বতা।

এমনটা হতে থাকলে মারাত্মক ঝু্ঁকির মধ্যে পরতে হতে পারে বলে মনে করেন সুশীল ও শিক্ষিত সমাজ।

এ বিষয়ে জামশা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মিঠু একুশে জার্নালকে জানান- জামশা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যবৃন্দ ও উপজেলা প্রশাসন জনগণের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টির জন্য সর্বাত্বক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পাশাপাশি জনগণকেও যথার্থ সচেতন হতে হবে। জনগণের সচেতনতাই পারে করোনা ভাইরাস মোকাবেলা করতে।