সাম্প্রতিক ফেইসবুক নিয়ে কিছু কথা

একুশে জার্নাল

একুশে জার্নাল

জুন ১১ ২০১৯, ১১:৫৪

ফারজানা ইসলাম নিশি

দৃষ্টি আর্কষিত তরুণ-তরুণীগণ
আপনারা সকলেই জানেন,
ফেইসবুক স্যুসাল মিডিয়ার অন্যতম একটি জনপ্রিয় মাধ্যম।বর্তমান সময়ে ফেইসবুক সকলের কাছে খুব জনপ্রিয়। বিশেষ করে কম বয়সী ছেলে-মেয়ে থেকে শুরু করে আমাদের তরুণ সমাজ খুব সহজেই ফেইসবুক নেশার প্রতি আকৃষ্ট হয়ে পড়ছে।আমরা নিজেকে কিছুতেই যেনো নিয়ন্ত্রণ করতে পারছি না।প্রতিনিয়ত আমরা ফেইসবুকের মাধ্যমে ভালো খারাপ দুটো দিকেই লক্ষ করে থাকি।বিশেষ করে অপব্যবহার টাই বেশি যেহেতু তাই, আমি আজ আপনাদের সামনে ফেইসবুকের অপব্যবহারটুকুই তুলে ধরছি।

প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠেই কিছু ভূয়া নিউজ সহ বিভিন্ন নিউজ দেখতে পায় আমরা ফেইসবুকে তাইনা?এভাবে বিভিন্নভাবে প্রতারণার ও স্বীকার হচ্ছি আমরা।ফেইসবুকে আমরা ,বিভিন্নরকমের ব্যক্তির ও দেখা পায়।ফেইসবুকের অনেক ভূয়া খবরে আমরা অনেক সময় হতাশ হয়ে পড়ি।সকালে উঠেই আগে যে ব্যক্তিটি নিজ নিজ কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়তো, সেই ব্যক্তিটি আজ সকালে উঠে আগে ফোনটা হাতে নিয়ে ফেইসবুক নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়ছে।মেধাবী ছেলে-মেয়েদের ও এখন আর পড়াশোনায় তেমন মনযোগ নেই। রেজাল্ট করছে খারাপ যার ফলে পরিবারের শুনাম হচ্ছে ক্ষুন্ন আর নিজের জীবনকে করছে ধ্বংস ।ফেইসবুক চেটিং ও কিনতু আমাদের ব্রেইনকে ধারুণভাবে ওয়াশ করে যাচ্ছে যা আমরা নিজেও টের পায় না।একটা মেধাবী শিক্ষার্থী আজ নিজের মেধাকে গলা টিপে হত্যা করছে ফেইসবুকের নেশায় আসক্ত হয়ে ।অনেকেই আবার স্যুসাল মিডিয়াতে নিজের আবেগ,ইচ্ছাশক্তি,মনের­­ কথা, যন্ত্রণার কথা শেয়ার করছে।অনেকেই আবার সুখের কথা, হাসির কথা,ফেইসবুকে ছবি আপলোড, দুঃখভরা স্মৃতি শেয়ার করে নিজের সিক্রেট কথা গুলো সহজেই বের করে দিচ্ছে ,যার ফলে নিজের গোপনীয় সকল তথ্য সহজেই বেড়িয়ে আসছে।আমরা যা করছি সব ফেইসবুকে শেয়ার করে দিচ্ছি,যা পুরো পৃথিবী দেখছে। প্রতিনিয়ত ফেইসবুক কম্পানির কাছে এসব তথ্য গুলো জমা হয়ে যাচ্ছে। যার জন্য আমাদের জীবনের হতে পারে অনেক বড় ক্ষতি।এখন তো ফেইসবুকে ভালোবাসার কথা,ক্রাশ নামক কিছু জিনা শব্দ,কিভাবে লাইক, কমেন্ট, ফলোয়ার বাড়াবে সেসব নিয়েই ডিজিটাল ছেলে মেয়েরা ব্যস্ত তাইনা?আমি এমন অনেক পোস্ট ফেইসবুকে দেখেছি যা দেখে তরুণ সমাজের প্রতি মারাত্মক ঘৃণা জন্মেছে।যেমনঃআপুরা প্রেম করবা,আমি আজ অমুকের উপর ক্রাশ খেয়েছি।আমি খুব একা,আমার একটা মনের মানুষ দরকার।ছবি আপলোড দিয়ে ক্যাপশন দেয় এই আমাকে দেখতে কেমন লাগছে?আমার একটা জিএফ, বিএফ দরকার কেউ রাজি থাকলে সারা দাও!
বিভিন্নরকম সেস্টাস, ছবি প্রতিনিয়ত আমাদের চোখের সামনে ধরা পড়ছে।আমার বিভিন্নভাবে লজ্জাহানির স্বীকার হচ্ছি।বিশেষ করে প্রতিটি ছেলেমেয়ে এভাবে পড়াশোনার ও বিরাট ক্ষতি করছে।ফেইসবুক হচ্ছে একটা নেশা যা ছেলে মেয়েদের প্রতিনিয়ত ব্রেইন ওয়াশ করে যায়।প্রতিনিয়ত ছেলে মেয়েরা স্বীকার হচ্ছে ডিপ্রেশনের।মানসিক অশান্তি যেনো কোনো ভাবেই নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না।নিদ্রার নেশায়ও যেনো প্রতিনিয়ত রাত জেগে যাচ্ছে ।আর স্যুসাল মিডিয়ার মাধ্যমে সহজেই মনের ভাব প্রকাশ করাতে লজ্জা পরিমাণ ও কমে যাচ্ছে,মুখে কিছু যেনো আটকায় না।যে ছেলে-মেয়েগুলো কখন বাস্তবে কাউকে ভালোবাসার কথা বলতে পারেনি ফেইসবুক টেক্সে,টেস্টাস এর মাধ্যমে সহজেই বলে যাচ্ছে। আবার কিছু ছেলে মেয়েরা ভাবে টাইম পাছ করি ফেইসবুকে। যার জন্য হাজারটা প্রেম করে ধোঁকা খেয়ে প্রতিনিয়ত প্রতারণার স্বীকার হচ্ছে। বাস্তবিক ভাবে ভদ্র ছেলে মেয়ে গুলোও এভাবেই নষ্ট হয়ে যাচ্ছে । প্রচুর মিথ্যা কথাও শিখছে এ যুগের ছেলে-মেয়েরা এই ফেইসবুকের মাধ্যমে।আমরা এসব করে খুব আনন্দেই পায় তাইনা?

ডিজিটাল যুগের ছেলে মেয়েদের বলি, আমাদের তরুণ সমাজকে বলি, যখন স্যুসাল মিডিয়ার কোনো মাধ্যম ছিলো না তখন আপনারা কি করতেন? তখন কি আপনাদের জীবন চলেনি?আপনারা যে এসব করছেন তাতে আপনাদের ক্ষতিই হচ্ছে।

হয়তো আজ বুঝতে পারছেন না কিনতু সময় ফুরিয়ে গেলে একদিন হায় হায় করবেন।যখন দেখবেন জীবনের সবকিছু শূন্য, তখন নিজেকে মনে হবে নিঃসঙ্গ। আমরা আগেই সচেতন হই নিঃসঙ্গতায় পা না বাড়ায়।অযথা গুনাহের কাজে লিপ্ত হয়ে নিজেকে মানহানি না করি।যদি ও খারাপ কাজগুলো আমাদেরকে চুম্বকের মতো আর্কষণ করে তবু আমাদের খারাপ কাজগুলো বর্জন করা উচিত।নিজেকে অযথা সেলিব্রেটি বানানোর চেষ্টা না করে সবসময় সৎ পথে চলে সুন্দর দিক নির্দেশনাগুলো মেনে চলি তাহলে এমনিতেই সেলিব্রেটি হতে পারবো।স্যুসাল মিডিয়া সেলিব্রেটি হওয়ার কোনো মাধ্যম নয়।আজ আপনার আইডিটা নষ্ট হয়ে গেলেই কাল আপনার সেলিব্রেটি শেষ।
আর টাইম পাছ তারাই করে যারা সময়ের মূল্য দিতে জানেনা।সো আমরা সময় বের করার মাধ্যম খুঁজবো, টাইম পাছ করে সময় নষ্ট করার মাধ্যম নয়।সময়কে গুরুত্ব দিন নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার মাধ্যমে সফলতা অর্জন করুন।
মনে রাখবেন, সফল ব্যক্তিরা সবসময় সুখি।
আজ থেকে আমরা মনযোগী হই ভালো কাজে।সময়কে গুরুত্ব দিয়ে ভালো কাজ গুলোর দিকে পা বাড়ায়।
Always Successful gift me a best life
Life is not crucial….
আমরা সবকিছুর ব্যবহার শিখবো
অপব্যবহার নয়।
লিমিট ক্রস করে কোনো কাজে পা বাড়াবো না।
ধ্বংসের হাত থেকে বেড়িয়ে আসুক তরুন প্রজন্মের ছেলে-মেয়েরা এটাই হোক আমাদের সকলের প্রতিজ্ঞা।অতিরিক্ত নেশা মানব জীবন ধ্বংসের মূল।তাই, আমরা নেশাকে বর্জন করতে শিখি।
আনন্দময় হয়ে উঠুক পৃথিবী
সুখি হোক প্রতিটি তরুন তরুনীর জীবনী।