সংক্রমণ আর কিছু কমলেই বিশেষজ্ঞদের পরামর্শে খুলে দেয়া হবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

একুশে জার্নাল ডটকম

একুশে জার্নাল ডটকম

আগস্ট ২৭ ২০২১, ১৭:২৪

ফাইল ফটো

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ আর কিছু কমলেই বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নিয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

তিনি বলেন, আশা করছি আগামী অক্টোবরের মাঝামাঝি পর্যায়ে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খুলে দিতে পারবো। আর সংক্রমণ কত নিচে নামলে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হবে, এর জন্য বিশেষজ্ঞ মতামতের অপেক্ষা করছি।

আগামী সপ্তাহে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় টেকনিক্যাল পরামর্শক কমিটির সঙ্গে এ নিয়ে বসবো।

শুক্রবার (২৭ আগস্ট) সকালে গাজীপুরে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর জীবনীর ওপর একটি প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এসে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ডা. দীপু মণি বলেন, আমরা আলাপ-আলোচনা করছি। অবস্থা পর্যবেক্ষণ করছি। বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে কথা বলছি আমরা। গতকালই প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, আমাদের শিক্ষা মন্ত্রণালয়, সকল বিশেষজ্ঞ, আমাদের যে জাতীয় টেকনিক্যাল পরামর্শক কমিটি রয়েছে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত এবং স্বাস্থ্য অধিদফতর, সবার সঙ্গে।

সকল বিশ্ববিদ্যালয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের সঙ্গে, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের যে অ্যাসোসিয়েশন আছে তাদের সঙ্গে ও শিক্ষক সমিতির ফেডারেশনকে নিয়ে গতকাল একটি যৌথ সভা হয়েছে।

আমরা চেষ্টা করছি আগামী এক মাসের মধ্যে আমাদের শিক্ষার্থীদের যারা ১৮ বছরের বেশি, তাদের টিকা দেওয়ার কাজ শেষ করার এবং তারপরে যেহেতু টিকা দেওয়ার পরে আরও সপ্তাহ দুয়েক লাগে, আপনারা জানেন ইমিউনিটি পেতে, অর্থাৎ অক্টোবরের মাঝামাঝি পর্যায়ে আশা করছি বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দিতে পারব।

স্কুল খুলে দেওয়ার ব্যাপারে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, স্কুলগুলো খোলার জন্য বিজ্ঞানসম্মতভাবে বলা হয়, শতকরা পাঁচ ভাগ বা তার নিচে নামলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা যায়।

কিন্তু আমাদের এখানে অত্যন্ত ঘনবসতিপূর্ণ এলাকা। এবং আমাদের শিক্ষার্থীরা অধিকাংশই, তাদের বাড়িতেও অনেক বেশি স্বল্প পরিসরে অনেকের সঙ্গে বসবাস করছে।

তারপরে দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ আছে, তাদের শারীরিকের সঙ্গে মানসিক স্বাস্থ্যের বিষয়টি আছে। আমরা সবকিছু বিবেচনায় নিয়ে জাতীয় টেকনিক্যাল পরামর্শক কমিটির সঙ্গে সামনের সপ্তাহেই বসবো।