ব্যাটারী চালিত রিক্সা-ভ্যান নিষিদ্ধের প্রতিবাদে ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

একুশে জার্নাল ডটকম

একুশে জার্নাল ডটকম

জুন ২৬ ২০২১, ১৫:১৯

ব্যাটারী চালিত রিকশা-ভ্যান নিষিদ্ধ করে প্রায় ৫০ লাখ শ্রমিককে বেকার করার অমানবিক সিদ্ধান্ত বাতিল করতে হবে

—অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন 


বৈশ্বয়িক মহামারি করোনায় যখন সাধারণ মানুষের জীবন চরম বিপর্যস্ত সেই মুহুর্তে ব্যাটারী চালিত রিকশা ও ভ্যান বন্ধ করে দিয়ে প্রায় ৫০ লাখ শ্রমিককে বেকার করার অমানবিক সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি জানিয়েছেন ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন।

আজ শনিবার বেলা ১১টায় রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাব চত্ত্বরে ব্যাটারী চালিত রিক্সা-ভ্যান নিষিদ্ধের প্রতিবাদে ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন আয়োজিত মানববন্ধনে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলনের প্রচার ও দাওয়াহ সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের সেক্রেটারী জেনারেল হাফেজ মাওলানা ছিদ্দিকুর রহমান, অধ্যাপক আব্দুল করীম, সৈয়দ ওমর ফারুক, মুফতী ছিদ্দিকুর রহমান, মাওলানা এইচ এম সাইফুল ইসলাম, ড. মুফতী মাহবুবুর রহমান, আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম, ইমাম হোসেন ভুইয়া, শহিদুল ইসলাম, আনিসুর রহমান, ডা. জাকির হোসেন, হাফেজ শাহাদাত হোসেন প্রধানিয়া, মো. ইব্রাহিম খলিল মুজাহিদ প্রমুখ।

 

অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন বলেন, সরকার শ্রমিকদের স্বার্থ বিকিয়ে দিয়ে তাদের বেকার করছে। বিদ্যুতের উপর চাপ কমাতে সরকার এধরণের সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে অবৈধ বিদ্যুৎ লাইন বিচ্ছিন্ন করা হলে অনেকাংশে বিদ্যুতের সাশ্রয় হতো। অপরদিকে বিত্তশালীদের এসির ব্যবহার কমিয়ে দিয়েও বিদ্যুৎ সাশ্রয় কর যেতো। কিন্তু সেই ব্যবস্থা না করে সাধারণ মানুষের ক্ষতিকর সিদ্ধান্তটি চরম অমানবিক।

 

অধ্যাপক আশরাফ আরও বলেন, এক্সিডেন্টের যে অজুহাত তুলে ধরা হয়েছে এটা অনেকটাই অমূলক। কারণ এক্সিডেন্ট শুধু অটোরিকশা ও ভ্যানে হয় এমনটি নয়। এক্সিডেন্ট বাস গাড়ি ট্রাক এমনকি প্লেন অ্যাক্সিডেন্ট হয়ে থাকে। সুতরাং এই ঠুনকো অজুহাতে প্রায় ৫০ লক্ষাধিক মানুষের জীবিকা বন্ধ করে দেয়ার সরকারের এই সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করার আহ্বান জানাচ্ছি।

 

হাফেজ মাওলানা ছিদ্দিকুর রহমান বলেন, শ্রমিক শ্রেণির মানুষ রিকশা ও ভ্যান চালিয়ে সংসার চালায়। তারা টাকা বিদেশে পাচার করে না। সাধারণ খেটে খাওয়ার মানুষের জন্য এমন ক্ষতিকর সিদ্ধান্ত শ্রমিক শ্রেণির মানুষের জীবন চরম দুর্বিষহ করে তুলবে। তাছাড়া বৈষয়িক কারণে মানুষের শারীরিক ক্ষমতা কমে গেছে বিধায় পায়ে চালিত রিকশা চালানো অনেকটাই কঠিন। এমতাবস্থায় মানবিক কারণে ব্যাটারী চালিত রিকশা ও ভ্যান নিষিদ্ধের আদেশ বাতিল করার দাবি জানাচ্ছি। তিনি বলেন, শাটডাউন দেয়ার আগে শ্রমিকদের ঘরে খাবার পৌঁছে দিতে হবে।