বিশ্ব ইজতেমায় শরীক হয়েছেন আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী:থাকবেন মোনাজাত পর্যন্ত 

একুশে জার্নাল ডটকম

একুশে জার্নাল ডটকম

জানুয়ারি ১১ ২০২০, ২১:১৬

টঙ্গীর বিশ্ব ইজতিমায় শরীক হয়েছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব ও হাটহাজারী মাদরাসার সহযোগী পরিচালক আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী। তীব্র শীত ও শারীরিক অসুস্থতাকে উপেক্ষা করে শুক্রবার রাতে দারুল উলুম হাটহাজারী মাদরাসা ক্যাম্পাস থেকে তিনি ইজতিমা মাঠের উদ্দেশ্যে জামিয়া রওনা হন।

এবারের বিশ্ব ইজতেমায় দাওয়াত ও তাবলীগের সাথী, উলামায়ে কেরাম ও সাধারণ মুসল্লীদের ব্যাপক অংশগ্রহণে স্মরণকালের বৃহৎ জমায়েত হওয়ায় মহান আল্লাহর শোকরিয়া আদায় করেন আল্লামা বাবুনগরী।

তিনি বলেন, দাওয়াত ও তাবলিগ হলো, ঈমান-আমল শিক্ষার অন্যতম প্ল্যাটফর্ম। ঈমান-আমলের শিক্ষার সঙ্গে সঙ্গে তাবলিগের অন্যতম উদ্দেশ্য হলো পরস্পর জোড় মিল ও মুহাব্বাত পয়দা করা। তাই পরস্পর কাদা ছোড়াছুড়ি বন্ধ করে একে অপরের প্রতি সহানুভূতিশীল হয়ে কাজ করতে হবে।

তাবলিগ জামাতের প্রতিষ্ঠাতা হযরত মাওলানা ইলিয়াস (রাহ.) হযরত মাওলানা ইউসুফ কান্ধলভী (রাহ.) এবং হযরত মাওলানা ইন’আমুল হাসান (রাহ.) এর পদাঙ্ক অনুসরণ করে এ কাজ করতে হবে। তাহলে একাজের মূল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য পূরণ হবে।

যুগ যুগ ধরে তাবলিগের কাজ স্ব-মহিমায় চলে আসছে। তাবলিগ জামায়াতে কোনো দ্বিধা-বিভক্তি ছিল না। বর্তমানে তাবলিগ জামায়াতে বিভক্তির চেষ্টা ইসলাম বিদ্বেষীদের চক্রান্ত বলে আমি মনে করি।তাই এ ব্যপারে সতর্ক থাকতে হবে। এবং ওলামায়ে কেরামের সাবিক তত্বাবধান ও দিকনির্দেশনা মেনে এখলাছের সহিত এ কাজ করতে হবে।

আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী শৃঙ্খলার সাথে ইজতেমার শেষ দিন আখেরী মুনাজাত পর্যন্ত সকলকে ময়দানে অবস্থান গ্রহণের আহ্বান জানান। পাশাপাশি ইজতিমায় আগত মুসল্লীদের সার্বিক নিরাপত্তা ও সুস্থতার জন্য মহান আল্লাহর সাহায্য কামনা করে দুআ করেন।