বিভাজন নয় বিএনপি সবসময় ঐক্যের রাজনীতি করে: মির্জা ফখরুল

একুশে জার্নাল ডটকম

একুশে জার্নাল ডটকম

মার্চ ০৩ ২০২২, ১৭:৫৬

বিএনপি বিভাজনের রাজনীতি করে না, সব সময় ঐক্যের রাজনীতি করে বলে দাবি করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, কিছু কিছু কুচক্রী মহল রয়েছে তারা মাঝে মধ্যে ধর্মের মধ্যে অরাজকতা সৃষ্টি করে। হাজার হাজার বছর ধরে এখানে সকলে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে ভাইয়ের মত বাস করেছে।

বৃহস্পতিবার (৩ মার্চ) দুপুরে রাজধানীর বাসাবো বৌদ্ধ মন্দিরে শুদ্ধানন্দ মহাথেরোর শেষ কৃত্যানুষ্ঠানে শ্রদ্ধাঞ্জলি শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, এটা বক্তব্য দেওয়ার কোনো জায়গা নয়। আমরা জাতীয়তাবাদী দল মনে করি এই দেশ আমার দেশ। সকল মানুষই বাংলাদেশি। জাতির ধর্ম আলাদা হতে পারে, কিন্তু একটা জায়গায় এসে আমরা সকলেই বাংলাদেশি।

তিনি বলেন, আমাদের দেশে ১৯৭১ সালে যে স্বাধীনতা যুদ্ধ করেছিলাম। সত্যিকার অর্থে একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র নির্মাণ করব, একটি মুক্ত সমাজ বিনির্মাণ করব, এখানে আমাদের সমস্ত মানুষে ধর্মীয় স্বাধীনতা নিশ্চিত হবে। দুঃখের কথা সত্যিকার অর্থে আমরা সেই জায়গা থেকে বহুদূর চলে এসেছে।

‘আমাদের গণতান্ত্রিক অধিকার হরণ করা হয়েছে আমাদের ন্যূনতম ভোটের অধিকার তাও হরণ করা হয়েছে। আমাদের বাকস্বাধীনতা হরণ করা হয়েছে। আজকে ভিন্নমত পোষণকারীরা বিভিন্নভাবে এখানে নির্যাতিত নিপীড়িত হচ্ছে,’ যোগ করেন বিএনপি মহাসচিব।

তিনি বলেন, দুর্ভাগ্য আমাদের। একদিকে বার্মা থেকে রোহিঙ্গা চলে এসেছে, অপরদিকে কাশ্মীরে মানুষেরা নির্যাতিত হচ্ছে এবং আজকে এই মুহূর্তে ইউক্রেনের নারী-শিশু দেশ ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছে রাশিয়ার আগ্রাসনের কারণে। দুর্ভাগ্য আমাদের সারাবিশ্বে শান্তি বিঘ্নিত হচ্ছে।

বিএনপির এ নেতা বলেন, আজকে এই প্রার্থনা করি মহাথেরো‌ যেন শান্তিতে থাকে এবং এদেশের মানুষ যেন তাদের হারিয়ে যাওয়া অধিকার ফিরে পায়। ধর্মীয় স্বাধীনতা বেঁচে থাকার অধিকার যেন ফিরে পায়। এই প্রার্থনাই আমরা করব।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন— বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির মাহমুদ চৌধুরী, ঢাকা মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস সালাম, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা সুকুমার বড়ুয়া, নির্বাহী কমিটির সদস্য সুশীল বড়ুয়া ও বিএনপি নেতা গৌতম চক্রবর্তী প্রমুখ।