ফুলবাড়িতে তুলা চাষে নিজেদের ভাগ্য বদলের স্বপ্ন বুনছেন চাষিরা

একুশে জার্নাল ডটকম

একুশে জার্নাল ডটকম

মার্চ ০২ ২০২২, ১১:৪৮

রোকন সরকার, কুড়িগ্রাম: কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে চলতি মৌসুমে তুলার বাম্পার ফলন হয়েছে। গত বছরের চেয়ে এ বছর তুলার দাম ভালো থাকায় লাভবান হওয়ার স্বপ্ন বুনছেন প্রান্তিক চাষিরা। আবহাওয়া অনুকূল ও হাইব্রীড জাতের বীজ ভালো হওয়ার কারণে উপজেলার তুলার বাম্পার ফলন হয়েছে।

এ দিকে গত কয়েক বছরের চেয়ে এ বছর তুলার দাম মন প্রতি ১ হাজার ২০০ টাকা বৃদ্ধি পেয়ে ৩ হাজার ৬০০ টাকা মন হওয়ায় কৃষকের মূখে হাসি ফুটেছে।

সরকারি ভাবে সম্প্রসারিত তুলা চাষ প্রকল্পের বিভিন্ন প্রণাদনা ও উপজেলা তুলা উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদের পরামর্শে চলতি মৌসুমে তুলা চাষ বৃদ্ধি পেয়েছে। সেই সাথে উপজেলা তুলা উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা ও কৃষকদের অক্লান্ত পরিশ্রমে তুলার ফলন হয়েছে অন্য বছররের তুলনায় অনেক ভালো।

নাওডাঙ্গা ইউনিয়নের ধুলারকুটি কৃষ্ণানন্দ বকসী এলাকার কৃষক হযরত আলী জানান, উপজেলা তুলা উন্নয়ন বোর্ড সার, বীজসহ বিভিন্ন ধরণের ঋন সহায়তা পেয়ে ১৫ বছর ধরে তুলা চাষ করে আসছেন। তিনি প্রতি বছর দুই বিঘা জমিতে তুলা চাষ করেন। এবছরও তিনি তুলা উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তার পরামর্শে দুই বিঘা জমিতে তুলার চাষ করেছেন। এ বছর ফলন ও তুলার দাম ভালো থাকায় অন্য বছরের তুলনায় তিনিসহ তুলা চাষিরা লাভবান হবেন।

একই এলাকার তুলা চাষি আব্দুল বাতেন জানান, ১ বিঘা জমিতে তুলা চাষ করেছি। ১ বিঘা জমিতে তুলা চাষ করতে খরচ কমপক্ষে ৮ থেকে ১০ হাজার টাকা খরচ হয়। জমিতে তুলা চাষ করার জন্য সার,বীজসহ সব ধরণের সুযোগ-সুবিধা অফিসেই বহন করে। কোন কৃষকের টাকা-পয়সা না থাকলেও তুলার চাষ করতে পারবে। তুলা উন্নয়ণ অফিস কৃষকদের আগাম সার,বীজ ও ঋনসহ বিভিন্ন ধরণের সুযোগ-সুবিধা প্রদান করেন। তুলা বিক্রি করেই তা পরিশোধ করতে হয়।

তিনি আরও জানান, গত কয়েক বছর ধরে সরকারী ভাবে তুলার মন ২ হাজার ৪০০ টাকা ছিল। এ বছর সরকারি ভাবে তুলার মন ১ হাজার ২০০ টাকা বৃদ্ধি করে ৩ হাজার ৬০০ টাকা তুলার মন হওয়ায় আমরা অন্য বছরের তুলনায় এবছর দামটা ভাল পাচ্ছি। এরকম দাম থাকলে তুলা চাষিরা লাভবান হবেন এবং তুলা চাষে আগ্রহী হয়ে উঠবেন চাষিরা।

উপজেলা তুলা উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা লুৎফর রহমান জানান, আবহাওয়া অনুকুল থাকায় চলতি মৌসুমে এই উপজেলায় তুলার বাম্পার ফলন হয়েছে। কৃষকরা যাতে উৎপাদিত তুলার ন্যায্যমূল্য পায় সে জন্য তুলার মুল্যও বাড়িয়েছে সরকার। ১ হাজার ২০০ টাকা তুলার মন প্রতি বৃদ্ধি করে ৩ হাজার ৬০০ টাকা তুলার মন নির্ধারণ করেছে। অন্য ফসলের চেয়ে তুলা চাষ লাভজনক হওয়ায় এ অ লের কৃষকরা তুলা চাষে দিনদিন আগ্রহী হচ্ছেন।

এ বছর এ উপজেলায় ১৬৩ হেক্টর জমিতে কৃষকরা তুলার চাষ করেছে। এবার ফলন ভালো হওয়ায় বিঘা প্রতি ১২ থেকে ১৪ মন করে তুলা ঘরে তুলবে। আগামী ১৫ থেকে ২০ দিনের মধ্যে সরকারি ভাবে প্রান্তিক চাষিদের কাছ থেকে তাদের উৎপাদিত ফসল তুলা ক্রয় করা হবে।