পদ্মায় অবৈধ বালু উত্তোলনের দায়ে একজনকে ৩ লাখ টাকা অর্থদন্ড

Raja Babu

Raja Babu

মার্চ ১৭ ২০২২, ১২:০২

বদিউজ্জামান রাজাবাবু, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ
চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে পদ্মা নদীর চরে অবৈধভাবে বালি-মাটি কাটার অভিযোগে জিয়াউর রহমান (৪৭) নামে একজনকে তিন লাখ টাকা অর্থদন্ড প্রদান করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। একই সঙ্গে দুটি এক্সক্যাভেটর মেশিন জব্দ করা হয়।
দন্ডপ্রাপ্ত জিয়াউর রহমান সদর উপজেলার কালিনগর গ্রামের মৃত নাইমুল হকের ছেলে ।
বুধবার ১৬ মার্চ বিকেলে ভ্রাম্যমাণ আদালত নেত্বত্ব দেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইফফাত জাহান ও শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকতা সাকিব আল-রাব্বি।
জানা গেছে, পদ্মা নদীতে জেগে ওঠা চরে খননযন্ত্র বসিয়ে অবৈধভাবে মাটি ও বালি কাটছিল সদর উপজেলার রামচন্দ্রপুর হাট এলাকার জিয়ারুল ওরফে জিয়া মেকার ও আবদুল মালেক। সেই মাটি বহনে ব্যবহার করা হচ্ছিলো ৩০-৩২টি ট্রাক্টর। পদ্মা নদীর ভাঙনরোধে নির্মাণ করা স্পার বাঁধের উপর দিয়ে বহন করা হচ্ছিল এসব বালি-মাটি। এতে ঝুঁকিতে পড়ে শতকোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত তীররক্ষা বাঁধটি। বুধবার খবর পেয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত ওই এলাকায় অভিযান চালিয়ে অবৈধভাবে মাটি-বালি কাটার কাজে ব্যবহৃত দুটি এক্সক্যাভেটর মেশিন জব্দ করা হয়। আটক করা হয় জিয়াউর রহমানকে। পরে তাকে ভ্রাম্যমাণ আদলতে হাজির করা হলে ৩ লাখ টাকা অর্থদন্ড দেয়া হয়। চাঁপাইনবাবগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী ময়েজ উদ্দীনসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।