নতুন ধারা: সোমবারের বাছাইকৃত খবরাখবর

একুশে জার্নাল

একুশে জার্নাল

সেপ্টেম্বর ০৬ ২০২১, ২৩:১৮

কে হচ্ছেন হাটহাজারী মাদ্রাসার মহাপরিচালক?

দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদ্রাসার মহাপরিচালক কে হচ্ছেন-তা ঠিক করতে আগামী বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) মজলিসে শুরার বৈঠক ডাকা হয়েছে। এদিন সকাল ১০ টায় চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে এ বৈঠক শুরু হবে। শুরার এই বৈঠকেই ঠিক হবে কে হচ্ছেন আল্লামা আহমদ শফীর উত্তরসূরি। একইসঙ্গে প্রতিষ্ঠানের শায়খুল হাদিস ও শিক্ষা পরিচালক পদেও নতুন নিযুক্তি দেবে দেশের প্রাচীন এই কওমি মাদ্রাসা।

২০২০ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর আল্লামা আহমদ শফীর মৃত্যুর পরেরদিন (১৯ সেপ্টেম্বর) মজলিসে শুরার বৈঠকে হাটহাজারী মাদ্রাসা পরিচালনা করতে তিন জনের একটি কমিটি করে দেওয়া হয়। ওই কমিটিতে ছিলেন মুফতি আব্দুস ছালাম, মাওলানা শেখ আহমদ ও মাওলানা ইয়াহিয়া।

হাটহাজারী মাদ্রাসার কয়েকজন শিক্ষক ও সিনিয়র ছাত্রদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আগামী বুধবার মাদ্রাসার শুরার বৈঠককে কেন্দ্র করে চাপা পরিস্থিতি বিরাজ করছে। বিশেষ করে গত শনিবার (৪ সেপ্টেম্বর) সরকারের একাধিক সংস্থার পক্ষ থেকে শুরার কয়েকজন সদস্যের সঙ্গে সাক্ষাতের পর পরিস্থিতি আরও ঘোলাটে হয়ে ওঠে। ছাত্রদের পক্ষ থেকে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের কাছে ‘নতুন মহাপরিচালক’ নিয়োগ না দিয়ে পরিচালনা প্যানেল তৈরির আবেদন করা হয়েছে।

প্রতিষ্ঠানের একাধিক শিক্ষক জানান, তিন জনের বর্তমান প্যানেল থেকে প্রতিষ্ঠানের মুহাদ্দিস মাওলানা শেখ আহমদকে ‘মহাপরিচালক’ করতে চাইছে সরকার প্রভাবিত পক্ষ। কোনও কোনও শিক্ষকের দাবি, আহমদ শফীর মৃত্যুর পর তার সন্তান আনাস মাদানীসহ যাদের বের করে দেওয়া হয়েছিল, তাদের ফিরিয়ে নিতে ও ক্ষমতাসীনদের প্রভাব নিরঙ্কুশ রাখতে শেখ আহমদকে মহাপরিচালক করতে চায় একটি পক্ষ। আর যেহেতু শুরা সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে মহাপরিচালক নিয়োগ করা হবে, সে কারণেই সংস্থার লোকজন সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন।

মাদ্রাসা সংশ্লিষ্ট একজনের ভাষ্য, হাটহাজারী মাদ্রাসাকে সরকারের প্রভাব বলয়ে রাখার কারণ হচ্ছে, প্রতিষ্ঠানটি ‘উম্মুল মাদারিস’ হিসেবে পরিচিত। সারাদেশের মাদ্রাসাকে এখান থেকে নিয়ন্ত্রণ করা সহজ হবে।

নতুন মহাপরিচালক হিসেবে সিনিয়র শিক্ষক মাওলানা আহমদ দিদার কাসেমীর নামও জোরেশোরে আলোচনায় আছে। বিশেষ করে সরকারবিরোধী পক্ষটি চাইছে শেখ আহমদকে না দিয়ে তাকে মহাপরিচালক করতে।

এ বিষয়ে শুরা কমিটির সদস্য, নাজিরহাট বড় মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা হাবিবুর রহমান কাসেমী বলেন, ‘আগামী বুধবার শুরা কমিটির বৈঠক ডাকা হয়েছে। ওই বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে কে হবেন মহাপরিচালক।’ হাবিবুর রহমান জানান, গোপন ব্যালট বা আলোচনার মাধ্যমেই প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন করা হবে।

হাটহাজারী মাদ্রাসার দাওরায়ে হাদিস, ইফতা ও তাফসির বিভাগের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন শিক্ষার্থী জানান, মজলিসে শুরা ও মহাপরিচালক নিয়োগ নিয়ে ছাত্রদের পক্ষ থেকে নীরবে আবেদন করা হয়েছে। এই আবেদনে তারা শুরা কমিটি পুনর্গঠনের প্রস্তাব করেন। আবেদনে সারা দেশের প্রত্যেক জেলার আলেম ও বড় বড় মাদ্রাসার মুহতামিমদের অন্তর্ভুক্ত করে শুরা কমিটি গঠনের কথা উল্লেখ করা হয়।

শিক্ষার্থীদের দাবিতে বলা হয়, প্রয়োজনে বেফাক (কওমি মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড) ও হাইয়াতুল উলইয়া’য় যেভাবে নিরপেক্ষ কাউন্সিল হয়েছিল সেভাবেই মহাপরিচালক নিয়োগ দেওয়া হোক।

জানতে চাইলে হাটহাজারী মাদ্রাসার পরিচালক-শুরার প্যানেল সদস্য ও কমিটির সদস্য মাওলানা ইয়াহিয়া বলেন, ‘মজলিসে শুরার বৈঠকেই মহাপরিচালক ঠিক করা হবে। আল্লামা শফী সাহেবের মৃত্যুর পর এতদিন তিন জনের (মজলিসে এদারি) পরিচালক কমিটি মাদ্রাসা পরিচালনা করেছেন। শুরার মিটিংয়ে নতুন একজনকে দায়িত্ব দেওয়া হবে।’

মাওলানা ইয়াহিয়া জানান, দেশে ও দেশের বাইরেও হাটহাজারী মাদ্রাসার মজলিসে শুরার সদস্য রয়েছেন। এরমধ্যে বেশ কয়েকজন গত এক-দেড় বছরে মারা গেছেন। বুধবারের বৈঠকে অন্তত ১৫-১৬ জন উপস্থিত থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন


নগদের ব্যাংক হিসাব খুলতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের অনুমতি লাগবে

বাংলাদেশ ডাক বিভাগ ও বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন ছাড়া ‘নগদ’ এর ডিজিটাল লেনদেনের জন্য ‘ট্রাস্ট কাম সেটেলমেন্ট অ্যাকাউন্ট’ না খুলতে ব্যাংকগুলোকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোকে এ বিষয়ে চিঠি দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) বিভিন্ন ব্যাংক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র বলছে, ডাক বিভাগের ‘নগদ’ এত দিন পরিচালনা করতো থার্ড ওয়েভ টেকনোলজিস লিমিটেড। এই প্রতিষ্ঠানের নাম পরিবর্তন করে এখন ‘নগদ লিমিটেড’ করা হয়েছে। এটি ডাক বিভাগের সেবা বলা হলেও এর মালিকানায় ডাক অধিদফতরের কোনও অংশ নেই।

এমন পরিস্থিতিতে নগদ লিমিটেডের নামে ব্যাংকে ‘ট্রাস্ট কাম সেটেলমেন্ট অ্যাকাউন্ট’ খোলার আগে ডাক বিভাগের অনুমোদন নিতে বলেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ব্যাংক হিসাব খুলতে বাংলাদেশ ব্যাংকেরও পূর্ব অনুমোদন নিতে বলা হয়েছে। সেবা চালু রাখতে নগদকে এই হিসাব খুলতেই হবে। আগে থার্ড ওয়েভের নামে এ হিসাব খোলা হতো।

মোবাইলে আর্থিক সেবাদাতা (এমএফএস) প্রতিষ্ঠান প্রতিদিন যে পরিমাণ ডিজিটাল লেনদেন করে, তার সমপরিমাণ নগদ অর্থ ব্যাংক হিসাবে জমা রাখতে হয়। গ্রাহকের আর্থিক নিরাপত্তার জন্য এ অর্থ রাখতে হয়। যে হিসাবে এ অর্থ লেনদেন হয়, ওই হিসাবকে ‘ট্রাস্ট কাম সেটেলমেন্ট অ্যাকাউন্ট’ বলা হয়ে থাকে।

বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোতে পাঠানো চিঠিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ ডাক বিভাগের ডিজিটাল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’ এর ব্যাংক হিসাব পরিচালনায় থার্ড ওয়েভ টেকনোলজিস লিমিটেডের নাম পরিবর্তন করে ‘নগদ লিমিটেড’ করা হয়েছে।


জাতীয় সরকারের প্রস্তাব জাফরুল্লাহ চৌধুরীর

প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগকে বাদ দিয়ে জাতীয় সরকার নয়। আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে শেখ রেহানা ও তার ছেলে, তোফায়েল আহমেদ, মতিয়া চৌধুরী, বিএনপির যারা আছেন এবং আমরা সাধারণ মানুষ যারা আছি, তাদের নিয়ে জাতীয় সরকার করেন।’

সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রাজধানীর শিশু কল্যাণ পরিষদ মিলনায়তনে মহান মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক বঙ্গবীর এম‌এজি ওসমানীর ১০৩তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ‘মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে বিতর্ক ও তার প্রভাব’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। জাতীয় স্মরণ মঞ্চ এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মোহাম্মদ ইবরাহিম বলেন, ‘সরকারের মাথায় কোন ষড়যন্ত্র খেলা করছে তা এখনও স্পষ্ট হয়ে ওঠেনি। তবে একটি না একটি ষড়যন্ত্র পাকাচ্ছে।’

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহামুদুর রহমান মান্না বলেন, যারা মনে করেন আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু করতে পারলে আমরা গণতন্ত্রের স্বাদ পাবো, তাদের মনে রাখতে হবে—এই সরকার ক্ষমতায় থাকলে কোনও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না। উনি (শেখ হাসিনা) ক্ষমতায় থাকলে নির্বাচন কমিশন কেন, প্রধান বিচারপতিরও ক্ষমতা নেই। তিনি (শেখ হাসিনা) যেভাবে চাইবেন সেভাবে হবে।’

ডাকসুর সাবেক ভিপি নূরুল হক নূর বলেন, ‘জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো থেকে মানুষের দৃষ্টি অন্যদিকে নিতেই জিয়াউর রহমানের কবরস্থান থেকে শুরু করে তার মুক্তিযুদ্ধে অবদান নিয়ে বিতর্ক তৈরি করা হয়েছে। এটা ইচ্ছাকৃত করা হচ্ছে। এর পেছনে দুরভিসন্ধি আছে।’

জাতীয় স্মরণ মঞ্চের সভাপতি প্রকৌশলী মনিরুজ্জামান দেওয়ান মানিকের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলেন সভাপতি ইশতিয়াক আজিজ উলফাত, নেজামে ইসলাম পার্টির নির্বাহী সভাপতি একেএম আশরাফুল হক প্রমুখ।


জামায়াতের সেক্রেটারি জেনারেলসহ ৯ জন আটক

জামায়াতের সেক্রেটারি জেনারেল মিয়া গোলাম পরওয়ার এবং শিবিরের সাবেক সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ৯ জনকে আটক করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গুলশান বিভাগ।

সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যার পর ঢাকার বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার একটি বাসা থেকে ভাটারা থানা পুলিশ তাদের আটক করে। ডিএমপির গুলশান বিভাগের উপ-কমিশনার মো. আসাদুজ্জামান এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাদের আটক করা হয়েছে। তারা গোপন বৈঠকে রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছিল।’

আটককৃতদের মধ্যে অন্যরা হলেন- সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মাওলানা রফিকুল ইসলাম খান, মাওলানা হামিদুর রহমান আজাদ, কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদের সদস্য আব্দুর রব, অধ্যাপক ইজ্জত উল্লাহ, মোবারক হোসাইন, ছাত্র শিবিরের সাবেক সভাপতি ইয়াসির আরাফাত প্রমুখ।


নাশকতার মামলায় জামায়াতের ২৮ নেতাকর্মী গ্রেফতার

নাশকতার মামলায় নীলফামারীর ডোমারের তিনটি ইউনিয়নের জামায়াতের আমিরসহ ২৮ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এই মামলার ৩০ জন চার্জশিটভুক্ত পলাতক আসামির বিরুদ্ধে আদালতের গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি ছিল।

সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নীলফামারী জেলা ও দায়রা জজ রেজাউল করিম সরকারের আদালতে আসামিরা আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইলে আদালত ২৮ জনের জামিন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ২০১৮ সালের ১২ সেপ্টেম্বর ডোমার উপজেলা সদর ইউনিয়ন, জোড়াবাড়ি ইউনিয়ন এবং পাঙ্গা মটকপুর ইউনিয়নের জামায়াতের আমির যথাক্রমে আব্দুল কুদ্দুস, লিয়াকত আলী ও আব্দুর রাজ্জাকের নেতৃত্বে সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনে নেমে নাশকতা করা হয়।


‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম নিয়ন্ত্রণের সব ক্ষমতা বিটিআরসির নেই’

টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি’র চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার বলেছেন, ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম নিয়ন্ত্রণের সব ক্ষমতা বিটিআরসির নেই। আমাদের অনেক ক্ষমতা রয়েছে, আইন সে ক্ষমতা দিয়েছে কিন্তু সেই ক্ষমতার মধ্যেও কিছু সীমাবদ্ধতা রয়েছে।’

সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর রমনায় বিটিআরসি’র সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, কনটেন্ট এবং আনুষঙ্গিক বিষয়’ নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

বিটিআরসি চেয়ারম্যান বলেন, ‘আমরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সব কিছু বন্ধ করতে পারি না। এখানে তাদের অফিস নেই। ফলে তাদেরকে বিভিন্ন লিংক, ভিডিও ইত্যাদি বন্ধ করতে অনুরোধ পাঠাতে হয়। কিছু অনুরোধ তারা রাখে, কিছু অনুরোধ রাখে না। এ দেশে তাদের অফিস থাকলে বাধ্য করা যেত।’

ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার ভার্চুয়াল মাধ্যমে সংযুক্ত থেকে বলেন, ইন্টারনেটের ব্যবহার বাড়ায়, এ কেন্দ্রিক অপরাধও বেড়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকেন্দ্রিক সব কনটেন্ট প্রযুক্তিগত কারণেই অপসারণ করা সম্ভব হয় না।

বিটিআরসি’র সক্ষমতার কথা বলতে গিয়ে মন্ত্রী বলেন, দেশের সীমানার মধ্যে ওয়েবসাইটগুলো পুরোপুরি বন্ধ করা গেলেও সামাজিক মাধ্যমগুলোর সব লিংক পুরোপুরি বন্ধ করা সম্ভব হয় না। কারিগরি অনেক বিষয় এখানে জড়িত। তিনি মনে করেন, সমস্যা যা হলো ওদের কমিউনিটি স্ট্যান্ডার্ড নিয়ে। ওদের কাছে যা স্ট্যান্ডার্ড তা আমাদের স্ট্যান্ডার্ড মনে নাও হতে পারে বা আমাদের সমাজ সংস্কৃতির সঙ্গে যায় না। এটাই ফেসবুক বুঝতে চায় না।

ফেসবুক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে এখন আমাদের নিয়মিত কথা হয়‑ তারা এখন দ্রুত সাড়া দেয়, যা আগে ছিল না উল্লেখ করে মোস্তাফা জব্বার বলেন, যে বিষয় বন্ধ করার সক্ষমতা বিটিআরসি’র নেই, সে বিষয়ে আমাদের দায়ি করা হলে তা অবিচার হবে।

মন্ত্রী জানান, ডিপার্টমেন্ট অব টেলিকম ও সাইবার থ্রেট ডিটেকশন অ্যান্ড রেসপন্স’র (সিটিডিআর) মাধ্যমে এ পর্যন্ত ২২ হাজারের বেশি পর্নো সাইট ও অনলাইন জুয়ার সাইটে প্রবেশ বন্ধ করা হয়েছে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বিটিআরসি চেয়ারম্যান বলেন, পরীমণি ও পুলিশ কর্মকর্তা এবং ডা. সাবরিনা ও আরিফ চৌধুরীর ব্যক্তিগত ভিডিও অপসারণ করার বিষয়ে কেউ বিটিআরসিতে আবেদন করেনি। যদিও এরই মধ্যে ফেসবুকের কাছে ৫০টি এবং ইউটিউবের কাছে ৩৫টি লিংক সরানোর জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।


নবম দিনের মতো মৃত্যু একশ’র নিচে: মৃত্যু কমেছে ২৫ শতাংশ

দেশে গত সপ্তাহে করোনার নমুনা পরীক্ষা, শনাক্ত রোগী, সুস্থ রোগী এবং করোনাতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু তার আগের সপ্তাহের চেয়ে কমেছে। আজ সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদফতর করোনা বিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানায়, গত সপ্তাহে (৩০ আগস্ট থেকে ৫ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত দেশে করোনার নমুনা পরীক্ষা হয়েছে এক লাখ ৯৪ হাজার ৬২২টি। যা কিনা তার আগের সপ্তাহে (২৩ আগস্ট থেকে ২৯ আগস্ট) ছিল দুই লাখ ১৯ হাজার ৮৭৬টি। অর্থাৎ গত সপ্তাহে করোনার নমুনা পরীক্ষা তার আগের সপ্তাহের তুলনায় কমেছে ১১ দশমিক ৪৯ শতাংশ।

একইভাবে গত সপ্তাহে করোনাতে নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন ২০ হাজার ৯১৯ জন। যা কিনা তার আগের সপ্তাহে ছিল ৩১ হাজার ৫৩৯ জন। আগের সপ্তাহের চেয়ে গত সপ্তাহে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা কমেছে ৩৩ দশমিক ৬৭ শতাংশ।




পাঞ্জশিরে উড়ছে তালেবানের পতাকা

আফগানিস্তানের পাঞ্জশির দখলে নেওয়ার দাবি করে প্রাদেশিক গভর্নরের কার্যালয়ে পতাকা উড়িয়ে দিয়েছে সশস্ত্র তালেবান যোদ্ধরা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রকাশিত একটি ভিডিও-তে দেখা গেছে, প্রাদেশিক ভবনের বাইরে পতাকা তুলে স্লোগান দিচ্ছেন কয়েকজন তালেবান সদস্য।

তালেবান আফগানিস্তানের পাঞ্জশির বাদে সবকটি প্রদশে নিয়ন্ত্রণে নেয় অনেক আগেই। তবে সেখানে ন্যাশনাল রেজিস্ট্যান্স ফ্রন্টের (এনআরএফ)-এর যোদ্ধার এতদিন প্রতিরোধ গড়ে তোলায় তা নিয়ন্ত্রণে নিতে পারেনি তালেবান। তবে উপত্যাকা দখলে নিতে কয়েকদিন তীব্র লড়াই চালিয়ে আসছে তালেবান যোদ্ধরা।

সোমবার আফগানিস্তানের শেষ প্রদেশ পাঞ্জশিরের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার দাবি করছে তালেবান। তালেবান মুখপাত্র বলেন, ‘এই জয়ের মাধ্যমে আমাদের দেশ সম্পূর্ণভাবে যুদ্ধের জঞ্জাল মুক্ত হলো।’ তবে তালেবানের এই দাবি অস্বীকার করেছে আহমেদ মাসুদের নেতৃত্বাধীন দল এনআরএফ।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে এসেছে, তীব্র লড়াই দু’পক্ষেরই ব্যাপক প্রাণহানি হয়েছে। অল্প সময়ের মধ্যে নতুন সরকার গঠনের ঘোষণা দিতে যাচ্ছে তালেবান।


অডিও বার্তায় যা বললেন আহমেদ মাসুদ

আফগানিস্তানের পাঞ্জশিরের প্রাদেশিক গভর্নরের বাসভবনের নিয়ন্ত্রণ তালেবানের হাতে যাওয়ার পর মুখ খুলেছেন প্রতিরোধ বাহিনীর নেতা আহমেদ মাসুদ। প্রতিরোধ যোদ্ধাদের শেষ ঘাঁটির পতনের পর দেওয়া এক অডিও বার্তায় ন্যাশনাল রেজিস্ট্যান্স ফ্রন্টের (এনআরএফ) নেতা মাসুদ তালেবানের বিরুদ্ধে জাতীয় অভ্যুত্থানের ডাক দিয়েছেন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শেয়ার করা ওই অডিও বার্তায় আহমেদ মাসুদ বলেন, আলেমদের অনুরোধ উপেক্ষা করে তার বাহিনীর ওপর হামলা করেছে তালেবান। আর সেই হামলায় রবিবার তার নিজের পরিবারের কয়েকজন সদস্যও নিহত হয়েছেন বলেও জানান তিনি।

প্রায় ১৯ মিনিটের ওই অডিও বার্তায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের নিন্দা করেন আহমেদ মাসুদ। তিনি দাবি করেন, তালেবানকে বৈধতা দিচ্ছে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়। আর এ কারণেই তালেবানের সামরিক ও রাজনৈতিক আত্মবিশ্বাস বাড়ছে।

আহমেদ মাসুদ দাবি করেন, প্রতিরোধ বাহিনী এখনও পাঞ্জশিরে রয়েছে আর তারা তালেবানের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাবে। তবে মাসুদের এই দাবি আগেই প্রত্যাখ্যান করেছে তালেবান।


সরকার গঠনের অনুষ্ঠানে তুরস্ক ও চীনসহ ৬ দেশকে আমন্ত্রণ তালেবানের

আফগানিস্তানে তালেবানের নেতৃত্বে নতুন সরকার গঠনের অনুষ্ঠানে তুরস্ক ও চীনসহ ছয়টি দেশকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। দলটির একজন নেতা কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরাকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ওই নেতা জানান, তুরস্ক, চীন, রাশিয়া, ইরান, পাকিস্তান ও কাতারকে সরকার ঘোষণার অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, তালেবানের নতুন সরকার ঘোষণা এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র। সোমবার সকালে দলের মুখপাত্র জবিউল্লাহ মুজাহিদ জানিয়েছেন, গুরুত্বপূর্ণ সব সিদ্ধান্ত এরইমধ্যে নেওয়া হয়ে গেছে। এখন টেকনিক্যাল কিছু বিষয় নিয়ে কাজ করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, হানাদাররা কখনও দেশের ভালো করে না। দেশবাসীই দেশের ভালো চায়। যুদ্ধ শেষ। স্থিতিশীল সরকার গঠনের পথে রয়েছে আফগানিস্তান।


তালেবানের নিন্দায় সরব ইরান

আফগানিস্তানের পাঞ্জশিরে তালেবানের অভিযানের নিন্দায় সরব হয়েছে প্রতিবেশী শিয়া অধ্যুষিত দেশ ইরান। পাঞ্জশিরের বিদ্যমান পরিস্থিতিকে উদ্বেগজনক আখ্যায়িত করেছেন ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাঈদ খতিবজাদেহ। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে সাঈদ খতিবজাদেহ বলেন, পাঞ্জশিরের সংকটের সমাধান একমাত্র রাজনৈতিকভাবেই হতে পারে। আন্তর্জাতিক ও মানবিক আইনের দৃষ্টিতে অঞ্চলটিতে অবরোধ কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, তালেবান ১৯৯৬ থেকে ২০০১ মেয়াদে আফগানিস্তানে ক্ষমতায় থাকাকালেও দলটির সরকারকে স্বীকৃতি দেয়নি তেহরান। তবে ২০২১ সালের ১৫ আগস্ট তালেবান মার্কিন সমর্থিত সরকারকে উৎখাতের ঘটনায় প্রকাশ্যে দলটির বিরুদ্ধে কোনও মন্তব্য করেনি ইরান।


শিগগিরই প্রকাশ্যে আসবেন তালেবানের শীর্ষ নেতা: মুখপাত্র

তালেবান মুখপাত্র জানিয়েছেন তাদের শীর্ষ নেতা হাইবাতুল্লাহ আখুন্দজাদা জীবিত আছেন আর তিনি শিগগিরই প্রকাশ্যে আসবেন। সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানান তিনি।

গত ১৫ আগস্ট কাবুলের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পরও তালেবান শীর্ষ নেতা হাইবাতুল্লা আখুন্দজাদাকে প্রকাশ্যে দেখা যায়নি। তারপরে বেশ কিছু দিন গড়িয়ে গেলেও প্রশ্ন উঠতে থাকে তিনি কোথায় আছেন আর কেনও এখনো প্রকাশ্যে আসছেন না।

২০১৬ সালের মে মাসে তালেবানের শীর্ষ নেতা মনোনীত হন হাইবাতুল্লাহ আখুন্দজাদা। ধারণা করা হয় তার বয়স ষাটের কোঠায়। আর জীবনের বেশিরভাগ সময়ই আফগানিস্তানে কাটিয়েছেন।

তবে বিশেষজ্ঞরা মনে করেন হাইবাতুল্লাহ আখুন্দজাদা ‘কোয়েটা সুরা’র সঙ্গে নিবিড় যোগাযোগ রাখেন। পাকিস্তানের ওই শহরে তালেবানের শীর্ষ নেতারা বসবাস করে থাকেন বলে অনেকেই মনে করেন।

শীর্ষ নেতা হিসেবে হাইবাতুল্লাহ আখুন্দজাদা রাজনৈতিক, সামরিক এবং ধর্মীয় বিষয়ে তালেবানের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দিয়ে থাকেন।


নারীরা আফগান সমাজের গুরুত্বপূর্ণ অংশ: তালেবান

নারীদের আফগান সমাজের গুরুত্বপূর্ণ অংশ মনে করে তালেবান। সোমবার কাবুলে এক সংবাদ সম্মেলনে নিজ দলের এমন অবস্থানের কথা জানিয়েছেন তালেবান মুখপাত্র জবিউল্লাহ মুজাহিদ। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

এদিনের সংবাদ সম্মেলনে নারীদের প্রতি তালেবানদের মনোভাবের বিষয়ে জানতে চান সাংবাদিকরা। উত্তরে জবিউল্লাহ মুজাহিদ বলেন, নারীরা আমাদের সমাজের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। শরিয়া বা ইসলামি আইনের অধীনে তাদের অধিকারের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করা হবে।

২০২১ সালের ১৫ আগস্ট তালেবান কাবুলের নিয়ন্ত্রণ লাভের পর থেকেই নারী অধিকার নিয়ে প্রশ্নের মুখে পড়ছেন দলটির নেতারা। কাবুল দখলের দিনই দলের আরেক মুখপাত্র সুহাইল শাহিন বলেন, তালেবান নারীদের অধিকারের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করবে। হিজাব পরে শিক্ষা ও কাজের সুযোগ থাকবে তাদের।


ইসরায়েলের হাই সিকিউরিটি জেল ভেঙে পালিয়েছেন ৬ ফিলিস্তিনি

কঠোর নিরাপত্তা বেষ্টনী ভেঙে ইসরায়েলি কারাগার থেকে পালিয়েছেন ৬ ফিলিস্তিনি বন্দি। গিলবোয়া কারাগারের সুড়ঙ্গ খুঁড়ে রবিবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে কারাগার থেকে পালিয়ে যান তারা।

গিলবোয়া কারাগার দখলকৃত পশ্চিম তীরের কাছাকাছি। এই উত্তরাঞ্চলীয় কারাগারের কমান্ডার আরিক ইয়াকভ বলেন, টয়লেটে সুড়ঙ্গ করে পালিয়ে যান তারা। এদের একজনের নাম জাকারিয়া জুবায়েদী। তিনি পশ্চিম তীরের জেনিন শহরের ফাতাহ আন্দোলনের আল আকসা ব্রিগেডের সাবেক কমান্ডার ছিলেন।

পালানোর খবরে তাৎক্ষণিক উদ্ধার অভিযান নেমেছে ইসরায়েলের নিরাপত্তা বাহিনী। পলাতক ৬ ফিলিস্তিনিকে আটক করতে হেলিকপ্টার ও ড্রোন ব্যবহার করছে সেনা ও পুলিশ সদস্যরা।

হাই সিকিউরিটি জেল ভেঙে পালানোকে ‘একটি গুরুতর ঘটনা’ বলছেন ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেট।

ফিলিস্তিনের সশস্ত্র স্বাধীনতাকামী গোষ্ঠী হামাস একে ফিলিস্তিনের বিজয় অ্যাখা দিয়েছে। এক বিবৃতিতে হামাসের মুখপাত্র বলেন, শত্রুরা আমাদের সাহসী যোদ্ধাদের কারাগারে আটকে রেখে পরাজিত করতে পারবে না।