নতুন ধারা: সংক্ষেপে আজকের বাছাইকৃত সব খবর

একুশে জার্নাল ডটকম

একুশে জার্নাল ডটকম

আগস্ট ২৫ ২০২১, ২৩:০৭

চার বছর পূর্তি উপলক্ষে ক্যাম্পে রোহিঙ্গাদের মানববন্ধন

কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে যেকোনও ধরনের সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ থাকলেও তা উপেক্ষা করে বাংলাদেশে আশ্রয়ের চার বছর পূর্তি উপলক্ষে বিচ্ছিন্নভাবে মানববন্ধন করেছেন রোহিঙ্গারা। এছাড়া উখিয়া ও টেকনাফ ক্যাম্পের মসজিদে মসজিদে দোয়া মাহফিলও করেছেন তারা। মিয়ানমার থেকে নির্যাতনের শিকার হয়ে বাংলাদেশে পালিয়ে আসার চার বছর পূর্তি উপলক্ষে বুধবার (২৫ আগস্ট) এসব কর্মসূচি পালন করা হয়।

এদিকে, ক্যাম্পে নিরাপত্তা ব্যবস্থা ঠিক রাখতে সেখানে নিয়োজিত রয়েছে বিপুল পরিমাণ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য।

ক্যাম্পের একাধিক সূত্র নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, রোহিঙ্গা সংকটের চার বছর পূর্তির দিন ফজরের নামাজের পর মসজিদে মসজিদে দোয়া মাহফিল হয়েছে। কিছু কিছু এলাকায় বিভিন্ন লেখা সংবলিত প্ল্যাকার্ড নিয়ে রোহিঙ্গা শিশু ও নারীরা বিচ্ছিন্নভাবে সংক্ষিপ্ত মানববন্ধন করেছেন। তবে পুরো রোহিঙ্গা ক্যাম্পেই আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) ও পুলিশ টহল জোরদার করেছে। ফলে আজ বুধবার সকাল থেকেই কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফ উপজেলার ৩৪টি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এপিবিএন ছাড়াও জেলা পুলিশের সদস্য, র‌্যাব এবং গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা তৎপর রয়েছে।


‘মুক্তিপণের ৮ লাখ টাকা নিতে গিয়েছিলেন সিআইডির এএসপি’

দিনাজপুরের চিরিরবন্দর এলাকার মা-ছেলেকে অপহরণের পর রংপুরের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার সারোয়ার কবীর সোহাগ ১৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেছিলেন। এমনটাই অভিযোগ করেছেন অপহরণের শিকার নারীর মেয়ের জামাই কামরুল হক।

তিনি বলেন, ‘গত ২৩ আগস্ট রাত সাড়ে ৯টার দিকে একটি মোবাইলফোন নম্বর থেকে এএসপির কল আসে। এ সময় তিনি বলেন, আপনার শ্যালক ও শাশুড়িকে আমরা নিয়ে এসেছি। টাকা দিলে তাদের ছেড়ে দেওয়া হবে। এ সময় আমার কাছে ১৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়। পরে আমি এতগুলো টাকা দিতে পারবো না বলে জানাই। এ সময় এক ঘণ্টার মধ্যে টাকা দিতে বলা হয়, না হয় অপহরণ হওয়া দুই জনকে মেরে ফেলার হুমকিও দেওয়া হয়। আমি আট লাখ টাকা দিতে পারবো বলে জানাই। কিন্তু আমার কাছে আরও এক লাখ টাকা দাবি করা হয়। কথা বলা শেষ হলে এ বিষয়ে চিরিরবন্দর থানায় অভিযোগ করি। এরপর পুলিশের পরামর্শ অনুযায়ী তাদের টাকা দিতে যাই। অভিযুক্তরা প্রথমে আমাদের রানীরন্দর যেতে বলেন। রানীরবন্দরে গেলে লোকেশন চেঞ্জ করে দশমাইল এলাকায় যেতে বলেন। সেখানে গেলে আবার বাঁশেরহাটে আসতে বলা হয়। সেখানে যাওয়ার পর আমার কাছে একটি প্রাইভেটকার এসে থামে এবং টাকা দিতে বলে। ওই সময় উপস্থিত পুলিশ সদস্যদেরকে দেখিয়ে দিলে তারা অভিযুক্তদের আটক করেন।’

এদিকে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কোনও অনুমতি না নিয়ে এমনকি কোনও মামলা এবং অভিযোগ ছাড়াই অভিযানে গিয়ে অভিযুক্ত সারোয়ার কবীর সোহাগসহ তিন জন আটক হন বলে জানিয়েছেন সিআইডির রংপুরের ভারপ্রাপ্ত বিশেষ পুলিশ সুপার আতাউর রহমান। তার সঙ্গে এএসআই হাসিনুর রহমান ও পুলিশ কনস্টেবল আহসানুল ফারুখ মিলন ছিলেন বলেও জানান তিনি।


২৫ দিনে ৬ হাজার ছাড়ালো ডেঙ্গূ

চলতি বছরের সর্বোচ্চ সংখ্যক ডেঙ্গু রোগী পাওয়া গেছে আগস্ট মাসে। আগস্টের ২৫ দিনে ৬ হাজার ১৯৫ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এটি এখনও পর্যন্ত এ বছরের সর্বোচ্চ শনাক্ত। এছাড়া ডেঙ্গুতে এ পর্যন্ত মারা গেছেন ৪০ জন বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। মঙ্গলবার (২৪ আগস্ট) এ সংখ্যা ছিল ৩৮ জন।

বুধবার (২৫ আগস্ট) স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের দেওয়া তথ্য থেকে এসব জানা যায়।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছেন ২৭৮ জন। এদের মধ্যে ২৩০ জনই ঢাকার, আর ঢাকার বাইরের ৪৮ জন।


পরাজয় মাথায় নিয়ে আফগান যুদ্ধের কারিগর ডোনাল্ড রামসফেল্ডের মৃত্যু

দুইবার মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করা ডোনাল্ড রামসফেল্ড ৮৮ বছর বয়সে গত ২৯ জুন মারা যান। সমাহিত হওয়ার আগে গত সোমবার ফোর্ট মায়ারে তার শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়।

শেষকৃত্য অনুষ্ঠান সীমিত পরিসরে অনুষ্ঠিত হয়। আফগানিস্তান ও ইরাক যুদ্ধের স্থপতি হিসেবে বিভিন্ন সময়ে সমালোচিত হলেও শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে তাকে প্রশংসায় ভাসান শুভাকাঙ্ক্ষীরা। রামসফেল্ডের দীর্ঘ দিনের বন্ধু ও সাবেক মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট ডিক চেনি স্মৃতিচারণ করেন।


ভারত থেকে আসা ৩০ লাখ টাকার নকল ওষুধ আটক

বেনাপোল বন্দরের সিজিসি ৯ নম্বর গেট এলাকা থেকে ৩০ লাখ টাকার ভারতীয় নকল ওষুধসহ একটি কাভার্ডভ্যান আটক করেছে কাস্টমস। বুধবার (২৫ আগস্ট) দুপুরে উপ-কমিশনার এস এম শামিমুর রহমানের নেতৃত্বে এ ওষুধের চালানটি আটক করা হয়।

তিনি বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারি, একটি কাভার্ডভ্যানে বিপুল পরিমাণ ভারতীয় নকল ওষুধ সিজিসি ৯ নম্বর গেট এলাকায় রয়েছে। সেখানে অভিযান চালিয়ে কাভার্ডভ্যানসহ ওষুধগুলো আটক করা হয়েছে। এ সময় কৌশলে গাড়ির ড্রাইভার ও হেলপার পালিয়ে যায়। নকল ওষুধ কারবারিদের আটকের চেষ্টা চলছে।


গৃহশিক্ষকের বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যানে প্রবাসীর স্ত্রীর গায়ে আগুন

মানিকগঞ্জের ঘিওরে বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় এক প্রবাসীর স্ত্রীর গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে গৃহশিক্ষক শরিফ মিয়ার (৪০) বিরুদ্ধে। আগুনে ওই নারীর শরীরের ৪০ শতাংশ পুড়ে গেছে। গুরুতর অবস্থায় তাকে রাজধানীর শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা হলেও গ্রেফতার হয়নি অভিযুক্ত গৃহশিক্ষক।

সোমবার (২৩ আগস্ট) রাতে উপজেলার বালিয়াখোড়া এলাকায় দ্বিমুখ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত গৃহশিক্ষক শরিফ একই এলাকার বাসিন্দা ও দুই সন্তানের জনক।


বাসাবাড়ি ও মসজিদে ঢুকেছে পানি, মানুষের ভোগান্তি

টানা বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে খাগড়াছড়ির বিভিন্ন উপজেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। পানিতে ডুবে আছে মানুষের ঘর, বাড়ি, দোকানপাট, মসজিদ, মন্দিরসহ অন্যান্য ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান। পানি না নামায় খাগড়াছড়ির গঞ্জপাড়া এলাকার গোলাবাড়ি ইউনিয়নের আল-আকসা মসজিদে ফজর, জোহরের নামাজ পড়তে পারেননি ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা।

সরেজমিনে মসজিদটি ঘুরে এবং ইমাম মাওলানা মাঈনুদ্দিনের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, মঙ্গলবার (২৫ আগস্ট) রাত থেকে টানা বর্ষণে মসজিদে পানি উঠে গেছে। ফলে ফজর ও জোহরের নামাজ আদায় করতে পারেননি মুসল্লিরা।

মসজিদের পাশে ড্রেনেজ ব্যবস্থা ভালো না থাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে উল্লেখ করে ইমাম জানান, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা এই বিষয়ে বারবার আশ্বাস দিলেও তা ঠিক করেনি। গত বছর বেশ কয়েকদিন এভাবেই মসজিদে নামাজ হয়নি।


রোহিঙ্গা নির্যাতনকারীদের শাস্তির আওতায় আনা দরকার: যুক্তরাষ্ট্র

রোহিঙ্গাদের ওপর সহিংসতার আসল কারণের সমাধান বের করা এবং এর জন্য দোষী ব্যক্তিদের শাস্তির আওতায় আনার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে বলে মনে করে যুক্তরাষ্ট্র। এর মাধ্যমে ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনা প্রতিরোধ করা সম্ভব হবে বলে মনে করে দেশটি।

রোহিঙ্গা ঢলের পাঁচ বছর উপলক্ষ্যে দেওয়া এক বিবৃতিতে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নেড প্রাইস জানান, চার বছর আগে বার্মার মিলিটারিরা জাতিগত নিধনের জন্য উত্তর রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্মম হামলা চালায়, যা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের বিবেককে হতভম্ব করে দেয়।

যারা এই নির্যাতন ও মানবাধিকার লঙ্ঘন করেছে তাদের দায়বদ্ধতার আওতায় আনার জন্য যুক্তরাষ্ট্র পুনঃপ্রতিশ্রুতি দিচ্ছে বলে জানানো হয় বিবৃতিতে।


মধ্যপ্রাচ্যে উত্তেজনা, হঠাৎ যুক্তরাষ্ট্র সফরে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী

মধ্যপ্রাচ্যে চলমান উত্তেজনা নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে প্রথমবার সাক্ষাৎ হতে যাচ্ছে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেন্নেতের। অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলের নতুন করে বোমা হামলা এবং ইরানের সঙ্গে উত্তেজনার মধ্যেই যুক্তরাষ্ট্রে গেলেন তিনি।

কদিন আগেই অবরুদ্ধ গাজায় উপত্যাকা থেকে ফিলিস্তনের স্বাধীনতাকামী গোষ্ঠী হামাসের সদস্যরা ইসরায়েলি সীমান্ত এলাকায় বেলুন হামলা চালায়। এমন দাবি করে গাজায় দফায় দফায় পাল্টা বিমান হামলা চালায় ইসরায়েলি বাহিনী। ক্ষতিগ্রস্ত হয় বেশি কিছু আবাসিক স্থাপনা। এছাড়া মঙ্গলবার পশ্চিম তীরে এক ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে ইসরায়েলি সেনারা। এ ঘটনায় নতুন করে উত্তেজনার রেশ ছড়িয়েছে ফিলিস্তিন-ইসরায়েলের মধ্যে।


ব্যক্তি চরিত্র হনন করা প্রতিবেদন-ছবি-ভিডিও অপসারণ ও নিষেধাজ্ঞা চেয়ে রিট

কারও ব্যক্তি চরিত্র হনন করে প্রতিবেদন বা ভাইরাল হওয়া ছবি-ভিডিও সব অনলাইন মাধ্যম থেকে অপসারণ এবং এ বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়েছে। বুধবার (২৫ আগস্ট) হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট তাসমিয়া নুহাইয়া আহমেদ এ রিট দায়ের করেন।

রিটে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় সচিব, ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয় সচিব এবং বিটিআরসি’র চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্টদের বিবাদী করা হয়েছে।

রিটকারী বলেন, ‘কাউকে উদ্দেশ করে ব্যক্তি চরিত্র হনন করতে অনেক মিডিয়ায় প্রতিবেদন তৈরি, ছবি-ভিডিও পোস্ট ও ভাইরাল করা হচ্ছে। সাম্প্রতিক সময়ে চিত্রনায়িকা পরীমণি মাদ্রক উদ্ধারের মামলায় আটক হলেও তার ব্যক্তিগত ভিডিও আমরা ভাইরাল করছি। আবার মুনিয়ার মৃত্যুর পর তার বোন যখন মামলা করলো যে তার বোন প্রতারণার শিকার, তখন তার বেডরুমের ভিডিও ভাইরাল হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘আবার ডাক্তার সাবরিনা-আরিফ চৌধুরী যখন করোনা টেস্টের ভুয়া সার্টিফিকেট ইস্যুর অপরাধে আটক হলো তখনও তাদের হেয় করে অনেক ভিডিও ভাইরাল করা হয়। সামাজিক মাধ্যম ছাড়াও প্রধান প্রধান সংবাদ মাধ্যমগুলোও এসব নিয়ে প্রতিবেদন করেছে। যখন দেশে নারীর ক্ষমতায়ন হয়েছে বলে আমরা দাবি করছি ঠিক সে সময়েই এ ধরনের মিডিয়ায় রিপোর্ট তৈরি, ছবি, ভিডিও প্রকাশ-প্রচার করা হচ্ছে। তাই এগুলো বন্ধ করতেই রিটটি দায়ের করা হয়েছে।’


২৫ আগস্ট ‘রোহিঙ্গা গণহত্যা দিবস’ হিসেবে পালনের প্রস্তাব

রোহিঙ্গা সমস্যার পাঁচ বছরের মাথায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ধীরে ধীরে ইস্যুটির প্রতি আগ্রহ হারিয়ে ফেলছে। বুধবার (২৫ আগস্ট) নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় আয়োজিত রোহিঙ্গাদের জন্য দায়বদ্ধতা বিষয়ক এক ওয়েবিনারে বক্তারা একথা বলেন।

ওয়েবিনারে সাবেক পররাষ্ট্র সচিব মো. শহীদুল হক বলেন, ‘রোহিঙ্গাদের গণহত্যা ঠেকাতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে।’

বিষয়টিকে সবাইকে আবার মনে করিয়ে দেওয়ার জন্য তিনি প্রস্তাব করেন যে ২৫ আগস্ট ‘রোহিঙ্গা গণহত্যা দিবস’ হিসেবে পালন করা দরকার, যাতে করে মিয়ানমার সরকারের ওপর চাপ বৃদ্ধি পায়।


জেলা-উপজেলায় নিত্যপণ্যের বাজার মনিটরিং করবে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়

নিত্যপণ্যের মজুদ, সরবরাহ ও দাম স্থিতিশীল রাখতে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে বাজার মনিটরিং ব্যবস্থা জোরদার করা হবে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্য সচিব।

আজ বুধবার (২৫ আগস্ট) নিত্যপণ্যের মজুদ ও সরবরাহ পরিস্থিতি নিয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এক জরুরি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন মন্ত্রণালয়ের সচিব তপন কান্তি ঘোষ।

বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সচিব বলেন, বর্তমানে সব ধরনের নিত্যপণ্যের মজুদ পর্যাপ্ত, কোন ঘাটতি নেই। তাছাড়া কিছু পণ্য আমাদের আমদানি করতে হয়। আন্তর্জাতিক বাজারের সাথে সমন্বয় করে সেসব পণ্যের করে দাম নির্ধারণ করা হবে এ বিষয়ে ব্যবসায়ীরা সরকারকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।


জার্মানিতে পিৎজা ডেলিভারি করছেন সাবেক আফগান মন্ত্রী

আফগানিস্তানের সাবেক এক মন্ত্রী জার্মানিতে পিৎজা ডেলিভারির কাজ করছেন। ডেলিভারি কাজে নিয়োজিত সৈয়দ আহমাদ শাহ সাদাতের কয়েকটি ছবি টুইট করেছে আল জাজিরা আরবি। তিনি আফগানিস্তানের যোগাযোগ ও প্রযুক্তি মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

গত বছরের ডিসেম্বরে আফগানিস্তান ছেড়ে যান সৈয়দ আহমাদ সাদাত। বর্তমানে তিনি জার্মানির লেইপজিগ শহরে বসবাস করছেন। ২০১৮ সালে আশরাফ গণির মন্ত্রিসভায় যোগ দেন সাদাত। কিন্তু তার সঙ্গে মতবিরোধের জের ধরে পদত্যাগ করেন। পরে আফগানিস্তান ছেড়ে জার্মানিতে আশ্রয় নেন।


স্বামীকে খুন করলেন নিজেই, সংবাদ সম্মেলনে চাইলেন বিচার

প্রায় পাঁচ মাস আগে (২৭ মার্চ) নিজ কক্ষে এক ক্যাবল ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। হত্যার পরদিনই ‘পরকীয়া প্রেমিক’র সঙ্গে মিলে স্বামী হত্যার পর বিচারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেছিলেন স্ত্রী। সেখানে স্বামীকে হত্যার ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে কান্নায় ভেঙেও পড়তে দেখা যায় তাকে। তবে হত্যাকাণ্ডের প্রায় পাঁচ মাস পর এর রহস্য ভেদ করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। সংস্থাটি জানিয়েছে, নিহতের স্ত্রী ও তার প্রেমিক মিলে এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে। বুধবার (২৫ আগস্ট) পিবিআই-এর উপপরিদর্শক (এসআই) সালেহ ইমরান বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

ওই ক্যাবল ব্যবসায়ীর নাম ইলিম সরকার (৪২)। তিনি আশুলিয়ার কাঠগড়া এলাকার ফজল সরকারের ছেলে ও মহল্লায় ক্যাবল ব্যবসা করতেন। এ ঘটনায় নিহতের বাবা হত্যাকাণ্ডের পরদিন আশুলিয়া থানায় অজ্ঞাতদের আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন।

এ মামলায় সোমবার (২৩ আগস্ট) রাতে আশুলিয়া থেকে স্ত্রী ক্যামেলি বেগম ও প্রেমিক পিন্টুকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার দুইজনকে আজ আদালতে পাঠালে তারা হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করেন। পরে আদালত তাদেরকে কারাগারে পাঠায়। এছাড়াও ঘটনায় জড়িত বাকিদের গ্রেফতারের অভিযান চলছে বলেও জানান পিবিআই-এর এসআই সালেহ ইমরান।


ব্যাংক হিসাব ফ্রিজ-সম্পত্তি ক্রোকের ক্ষমতা দুদকের নেই: হাইকোর্ট

আদালতের অনুমতি ছাড়া কারও ব্যাংক হিসাব ফ্রিজ কিংবা সম্পত্তি ক্রোকের ক্ষমতা দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) নেই বলে পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ করেছেন হাইকোর্ট। বুধবার (২৫ আগস্ট) বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চের স্বাক্ষরের পর এ রায় প্রকাশিত হয়েছে।

ব্যক্তির ব্যাংক হিসাব জব্দ বা সম্পত্তি ক্রোকের বিষয়ে হাইকোর্ট রায়ে বলেছেন, কোনও ব্যক্তির সম্পত্তি ক্রোক বা ব্যাংক হিসাব ফ্রিজ করতে চাইলে দুদকের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে সিনিয়র স্পেশাল জজ বা বিচারিক আদালতে আবেদন করতে হবে। পর্যাপ্ত তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে আদালত সন্তুষ্ট হয়ে আদেশ দিলে তখন ব্যাংক হিসাব ফ্রিজ বা সম্পত্তি ক্রোক করার সুযোগ রয়েছে। এমনকি সেই সম্পত্তি যদি অপরাধলব্ধও হয়ে থাকে।


সিফাত বললেন মেজর সিনহা পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ডের শিকার

সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যা মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়েছে। টানা তিন দিন মামলার বাদী শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস ও শাহেদুল ইসলাম সিফাত সাক্ষ্য দিয়েছেন। আগামী ৫ থেকে ৮ সেপ্টেম্বর অন্য সাক্ষীদের সাক্ষ্যগ্রহণের দিন ধার্য করেছেন আদালত।

আদালত থেকে বেরিয়ে মামলার দ্বিতীয় সাক্ষী শাহেদুল ইসলাম সিফাত সাংবাদিকদের বলেন, মেজর (অব.) সিনহা পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন। আশা করি আদালত ন্যায়বিচার করবেন।

শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস বলেন, মামলার বিষয়ে নতুন করে বলার কিছু নেই। মামলার কাজ দ্রুত শেষ হবে কিনা এটি সাক্ষীদের ওপর নির্ভর করবে। এ মুহূর্তে আমি কোনও মন্তব্য করতে চাই না। তবে সুন্দর প্রক্রিয়ায় বিচার কার্যক্রম চলছে। আমরা আশাবাদী, ন্যায়বিচার পাবো।


কাবুলে প্রত্যাহারের অপেক্ষায় ১০ হাজারের বেশি মানুষ: পেন্টাগন

আফগানিস্তান ইস্যুতে মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতর পেন্টাগনে সংবাদ সম্মেলন করেছেন দেশটির প্রতিরক্ষা এবং সামরিক কর্মকর্তারা। যুক্তরাষ্ট্রের আঞ্চলিক নিরাপত্তা অভিযান বিষয়ক জয়েন্ট স্টাফ ডেপুটি ডিরেক্টর মেজর জেনারেল হ্যান্ক টেইলর জানিয়েছেন, তাদের মনোযোগ হলো দক্ষতা এবং নিরাপত্তার সঙ্গে কাবুল থেকে যত বেশি সম্ভব মানুষকে সরিয়ে নেওয়া।

মেজর জেনারেল হ্যান্ক টেইলর জানান, মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের ৪২টি সামরিক উড়োজাহাজ ১১ হাজার দুইশ’ মার্কিন নাগরিক এবং ৪৮টি মিত্র দেশের সাত হাজার আটশ’ নাগরিককে আফগানিস্তান থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। কাবুল বিমানবন্দর থেকে প্রতি ৩৯ মিনিটে একটি বিমান ছেড়ে যাচ্ছে বলে জানান তিনি।

কাবুল বিমানবন্দরে ১০ হাজারের বেশি মানুষ সরে যাওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে বলে জানান যুক্তরাষ্ট্রের ওই সামরিক কর্মকর্তা। মেজর জেনারেল হ্যান্ক টেইলর জানান আরও বহু মানুষ আফগানিস্তান ছাড়তে বিমানবন্দরে আসার চেষ্টা করছেন।


আফগানিস্তান শাসনে ১২ সদস্যের কাউন্সিল তালেবানের, থাকছেন কারজাই

আফগানিস্তান শাসনে ১২ সদস্যের একটি কাউন্সিল গঠন করতে যাচ্ছে তালেবান। আফগান সম্প্রচারমাধ্যম আরিয়ানা নিউজ বুধবার জানিয়েছে, এ কাউন্সিলে থাকতে পারেন দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাই, আফগান পুনর্গঠন কাউন্সিলের প্রধান আবদুল্লাহ আবদুল্লাহ এবং ইসলামিক পার্টির নেতা গুলবুদ্দিন হেকমাতিয়ার।

গত ১৫ আগস্ট তালেবান কাবুলের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর শান্তিপূর্ণ ক্ষমতা হস্তান্তর করতে ওই তিন নেতা একটি সমন্বয় কাউন্সিল গঠন করেন। নতুন সরকারি সংস্থা গঠন নিয়ে তারা ধারাবাহিকভাবে তালেবান সদস্যদের বৈঠক করেন।

তালেবান নেতৃত্বের ঘনিষ্ঠ সূত্রের বরাত দিয়ে গত সোমবার ফরেন পলিসির খবরে বলা হয়, আফগানিস্তান শাসন করতে ১২ সদস্যের কাউন্সিল গঠন করতে যাচ্ছে তালেবান। আর আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে গ্রহণযোগ্য একটি প্রশাসন গঠনে মরিয়া থাকায় যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত পুরনো সরকারের বেশ কয়েকজন সদস্যকেও যুক্ত করতে পারে তালেবান।

ফরেন পলিসির খবরে বলা হয়, তালেবানের শীর্ষ যে তিন ব্যক্তি ওই কাউন্সিলে থাকছেন তারা হলেন গোষ্ঠীটির সহ-প্রতিষ্ঠাতা আবদুল গণি বারাদার, গ্রুপটির প্রতিষ্ঠাতা মোল্লা ওমরের ছেলে মোল্লা মোহাম্মদ ইয়াকুব এবং হাক্কানি নেটওয়ার্কের ঊর্ধ্বতন নেতা খলিল হাক্কানি। নতুন এই কৌশলের মাধ্যমে প্রেসিডেন্ট কিংবা আমিরের মতো পদ সৃষ্টি করা হবে না।


আফগান ইস্যুতে শি-পুতিন ফোনালাপ

টেলিফোনে আলাপ করেছেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ও রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। দুই নেতা আফগানিস্তানের পরিস্থিতি নিয়ে গভীরভাবে মত বিনিময় করেছেন বলে জানিয়েছে চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম।

চীনা রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম বলছে, প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং জোর দিয়ে বলেছেন আফগানিস্তানের সার্বভৌমত্ব, স্বাধীনতা এবং আঞ্চলিক অখণ্ডতার প্রতি সম্মান দেখাবে চীন। এছাড়াও তিনি বলেছেন, আফগানিস্তানের অভ্যন্তরীণ ইস্যুতে হস্তক্ষেপ না করার নীতি বজায় রাখবে বেইজিং।

এছাড়া দুই নেতা একমত হয়েছেন যে বর্তমানে আঞ্চলিক এবং আন্তর্জাতিক পরিস্থিতি জটিল এবং দ্রুত পরিবর্তিত হচ্ছে। ফলে দুই দেশই যোগাযোগ বজায় রাখবে।


বাংলাদেশে ৮ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে ফেসবুক

বাংলাদেশে এক বিলিয়ন ডলার (৮ হাজার কোটি টাকা) বিনিয়োগ করবে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক। দেশের ডিজিটাল অবকাঠামো খাতে ফেসবুক বিনিয়োগের এ আগ্রহ প্রকাশ করেছে। ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বাংলা ট্রিবিউনকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, এটা ছিল আলোচনার একেবারে প্রথম ধাপ। পরে আরও বিস্তারিত বলা যাবে আসলে তারা কোন কোন খাতে বিনিয়োগ করতে চায়। এক বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, টাকার পরিমাণ এমনই হবে। তারা ডিজিটাল অবকাঠামোর কথা বলেছে। আমরা তাদের আগ্রহকে স্বাগত জানাই। মন্ত্রী যোগ করেন, বিভিন্ন দেশে ফেসবুক এ ধরনের বিনিয়োগ করে থাকে। তাদের আগ্রহের তালিকায় বাংলাদেশের নাম আছে। তার মানে ফেসবুক বাংলাদেশকে গুরুত্ব দিয়ে ভাবছে। তারা এখন এ দেশে ভ্যাট দেয়। বিনিয়োগ করতে চায়। এটা এ দেশের জন্য অন্যতম একটা দিক।

মোস্তাফা জব্বার জানান, ফেসবুক আগে বাংলাদেশকে গুরুত্ব দিতো না। কথাও শুনতে চাইতো না। ফেসবুকের সঙ্গে সম্পর্কের শিথিলতা দূর হয়েছে। তারা বাংলাদেশকে গুরুত্ব দিচ্ছে। তথ্য চাইলে দিয়ে সহযোগিতা করছে। ফেসবুক বাংলাদেশের দিক থেকে মুখ ঘুরিয়ে নিচ্ছে না।


দেশে ফ্রি ফায়ার ও পাবজি বন্ধ

ফ্রি ফায়ার ও পাবজির মতো অনলাইন গেমস বন্ধ (ব্লক) করার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের ডিপার্টমেন্ট অব টেলিকম (ডট)। তবে গেমগুলো পুরোপুরি ব্লক করতে কিছুটা সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন ডটের ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক মো. কামরুজ্জামান। টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি’র নির্দেশ পেয়েই কাজ শুরু করে ডট।

মো. কামরুজ্জামান বলেন, ‘এগুলো বন্ধ করলেও কিছু সমস্যা (বাইপাস) রয়ে যায়। এ জন্য ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান (আইএসপি), ইন্টারন্যাশনাল ইন্টারনেট গেটওয়ের (আইআইজি) সহযোগিতায় তা পুরোপুরি বন্ধ করা সম্ভব হবে।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা বলেন, ‘আদালতের নির্দেশনা পেয়ে বিটিআরসিকে নির্দেশ দিই। আদালত যে দুটোর (পাবজি ও ফ্রি ফায়ার ) বিষয়ে পরিষ্কার নির্দেশনা দিয়েছেন, সে দুটো বন্ধ করা হয়েছে। অন্য যেগুলোকে ক্ষতিকর বলা হয়েছে, সেগুলোর সঙ্গে বিভিন্ন পক্ষ জড়িত রয়েছে। ফলে তা পরবর্তীতে আলোচনা করে ঠিক করা হবে।’


দেশে এলো মোদির উপহারের আরও ৪০ অ্যাম্বুলেন্স

বাংলাদেশকে আরও ৪০টি অ্যাম্বুলেন্স উপহার দিয়েছে ভারত। বর্তমানে অ্যাম্বুলেন্সগুলো পেট্রাপোলে পৌঁছে। এর আগে গত ১৭ আগস্ট ৩১টি অ্যাম্বুলেন্স বাংলাদেশ সরকারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছিল।

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষ উপলক্ষে সফরে এসে বাংলাদেশকে ১০৯টি অ্যাম্বুলেন্স উপহারের ঘোষণা দেন। তার অংশ হিসেবে এই অ্যাম্বুলেন্সগুলো দেশে পৌঁছালো।


রোহিঙ্গাদের ১০ সংগঠনের বিবৃতি

মিয়ানমার থেকে বলপ্রয়োগের মাধ্যমে বিতাড়িত হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গারা চার বছর অতিক্রম করলো। ২০১৭ সালের এই দিনে রোহিঙ্গাদের ঢল সীমান্ত দিয়ে দেশে প্রবেশ করে। তারপর থেকেই তারা এখানে বসবাস করছেন। রোহিঙ্গাদের ১০টি সংগঠন দিনটি উপলক্ষে বুধবার (২৫ আগস্ট) একটি বিবৃতি দিয়েছে। সেখানে তারা জাতীয় ঐক্য সরকারকে রোহিঙ্গা মন্ত্রী নিয়োগ দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে এবং মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবর্তনে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সঙ্গে মিলে কাজ করার তাগিদ দিয়েছে।

বিবৃতি জানানো ১০টি সংগঠন হচ্ছে—চ্যাম্পিয়নস অব চেঞ্জ, এডুকেশন অ্যান্ড উইজডম ডেভেলপমেন্ট ফর রোহিঙ্গা উইমেন, রোহিঙ্গা রিফিউজি কমিটি, রোহিঙ্গা উইমেন এডুকেশন ইনিশিয়েটিভ, রোহিঙ্গা ইয়ুথ ফোর লিগ্যাল অ্যাকশন, রোহিঙ্গা ইয়ুথ ইউনিটি টিম, ভয়েজ অব রোহিঙ্গা, রোহিঙ্গা স্টুডেন্ট ইউনিয়ন, আরাকান রোহিঙ্গা ন্যাশনাল ইউনিয়ন, রোহিঙ্গা উইমেন এমপাওয়ারমেন্ট অ্যান্ড অ্যাডভোকেসি নেটওয়ার্ক।

বিবৃতিতে বলা হয়, ২০১৭ সালের আজকের দিনে মিয়ানমারে বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত কয়েক লাখ রোহিঙ্গা আসতে শুরু করেন বাংলাদেশে। মিয়ানমারে গণহত্যা ও হামলার কারণে সে দেশ থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেন রোহিঙ্গারা। আমরা এই দিনটিকে স্মরণ করি, যাতে ভবিষ্যৎ প্রজন্ম জানতে পারে আমাদের সঙ্গে কী ঘটেছিল। আমরা কয়েকটি সংগঠন স্মরণ ও শোক প্রকাশ করি এবং মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনীকে গণহত্যা ও মানবতাবিরধী অপরাধের জন্য জবাবদিহিতার আওতায় আনার আহ্বান জানাই।

এতে আরও বলা হয়,মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনী খুন, ধর্ষণসহ আমাদের গ্রাম জ্বালিয়ে ধ্বংস করে দিয়েছে। এই হামলার প্রেক্ষিতে প্রায় ১০ লাখের মতো রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী বাংলাদেশে পালিয়ে আসতে বাধ্য হয় এবং এখানে শরণার্থী ক্যাম্পে গাদাগাদি করে আশ্রয় নেয়। মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী হাজারের অধিক পুরুষ, নারী ও শিশুকে হত্যা করেছে এবং কয়েক হাজার মানুষকে বন্দি করেছে, যারা জান্তা সরকারের বিরোধিতা করেছিল। রোহিঙ্গারা এখনও রাখাইন প্রদেশে অনেক ঝুঁকির মধ্যে আছে এবং তাদের নাগরিকত্ব, অবাধ চলাচল এবং মানবাধিকার ক্ষুণ্ণ হচ্ছে।

এতে বলা হয়, আমরা মিয়ানমারের নাগরিক যারা জান্তা সরকারবিরোধী আন্দোলনকে সমর্থন করি; তারা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় এবং জাতীয় ঐক্য সরকারের আন্তর্জাতিক বিচারের প্রতিশ্রুতিকেও সমর্থন জানাই। আমরা তারপরও জাতীয় ঐক্য সরকারকে আহ্বান জানাই রোহিঙ্গা নীতি বর্ধিত করার জন্য এবং রোহিঙ্গা মন্ত্রী নিয়োগ দেওয়ার জন্য। আমরা জাতিসংঘকে আহ্বান জানাই সুনির্দিষ্টভাবে মিয়ানামারের সামরিক বাহিনীর ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের জন্য এবং উদ্ভূত পরিস্থিতি নিরসনের জন্য। জাতিসংঘকেও দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার ক্ষেত্রেও ধীর গতি অবলম্বন করতে দেখা গেছে।

বিবৃতিতে সংগঠনগুলো জানায়, আমরা বিশ্ব আদালতে গণহত্যার দায়ে দায়ের করা মামলাকে সমর্থন জানাই। আমরা এই কয়টি সংগঠন সারা বিশ্বের বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ অন্যান্য দেশের সরকারকে আহ্বান জানাই মিয়ানমারে সংঘটিত গণহত্যার মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের প্রতি যে অবিচার করা হয়েছে তার একটি পরিষ্কার ধারণা তুলে ধরার জন্য। বাংলাদেশ সরকারকে ধন্যবাদ জানাই আমাদের জায়গা দেওয়ার জন্য এবং সুরক্ষা নিশ্চিত করার জন্য। আমরা দীর্ঘ সময় ধরে মিয়ানমার ফেরত যাওয়ার জন্য অপেক্ষা করছি। চার বছর পেরিয়ে গেলো, আমারা মাতৃভূমিতে ফিরতে পারিনি। ন্যায়বিচার ও অধিকার প্রতিষ্ঠিত হবে এমন একটি দেশ গড়ে তুলতে একসঙ্গে কাজ করবো আমরা’


‘ডেঙ্গু মোকাবিলায় আলেম সমাজের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে’

এডিস মশা ও ডেঙ্গু মোকাবিলায় আলেম সমাজের ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, মেয়র কিংবা কাউন্সিলর কারও একার পক্ষেই এডিস মশা ও ডেঙ্গু মোকাবিলা করা সম্ভব নয়। সমাজের সর্বস্তরের মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে সামাজিক আন্দোলনের মাধ্যমে এটি মোকাবিলা করতে হবে।

বুধবার (২৫ আগস্ট) উত্তরা কমিউনিটি সেন্টারে ‘সুস্থ্যতার জন্য সামাজিক আন্দোলন’ শীর্ষক আলোচনা ও মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় ডিএনসিসি মেয়র এসব কথা বলেন।


সৌদি আরবে অনুমোদন পেলো সিনোভ্যাক ও সিনোফার্ম

করোনাভাইরাসের নতুন দুইটি টিকার অনুমোদন দিয়েছে সৌদি আরব। মঙ্গলবার অনুমোদন পাওয়া টিকা দুইটি হলো চীনের তৈরি সিনোভ্যাক এবং সিনোফার্ম। এর আগে দেশটিতে অনুমোদিত টিকা ছিলো চারটি। সেগুলো হলো অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা, ফাইজার-বায়োএনটেক, জনসন অ্যান্ড জনসন এবং মডার্না।

এর আগে সৌদি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, সিনোফার্ম ও সিনোভ্যাক টিকার পূর্ণ ডোজ গ্রহণকারীদের দেশটিতে প্রবেশের সুযোগ রয়েছে। তবে সেক্ষেত্রে সৌদিতে অনুমোদন পাওয়া চারটি টিকার যে কোনও একটির বুস্টার ডোজ গ্রহণের প্রয়োজন ছিলো।

দুই ডোজে আলাদা টিকা গ্রহণকারীদের প্রবেশেরও অনুমতি দিয়ে রেখেছিলো সৌদি আরব। সৌদি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বর্তমান সুপারিশে বলা হয়েছে, প্রথম ডোজ নেওয়ার তিন সপ্তাহ পর দ্বিতীয় ডোজ টিকা নিতে হবে।


মেয়েরা পালিয়ে বিয়ে করায় বাল্যবিয়ে বাড়ছে

অল্প বয়সের মেয়েরা বাড়ি থেকে পালিয়ে বিয়ে করার কারণে বাল্যবিবাহ বেড়ে যাচ্ছে বলে মনে করে সংসদীয় কমিটি। সংসদীয় কমিটির এমন তথ্যের প্রেক্ষিতে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয় এর কারণ খুজেঁ বের করার পাশাপাশি এ বিষয়ে একটি জরিপ পরিচালনা করছে। বুধবার (২৫ আগস্ট) সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির কার্যপত্র থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

কমিটি তার আগের বৈঠকে এ সংক্রান্ত একটি সুপারিশ করেছিল বলে জানা গেছে। ওই বৈঠকের কার্যবিবরণীতে দেখা গেছে কমিটির সভাপতি মেহের আফরোজ নিজেই প্রসঙ্গটি তোলেন। তিনি বলেন, অল্প বয়সের অনেক মেয়ে এখন বাড়ি থেকে পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করছে। যার কারণে বাল্যবিয়ে বেড়ে যাচ্ছে। পরে কমিটি বিষয়টি সুপারিশ আকারে নিয়ে আসে।


খাবার লাগবে এক কোটি আফগান শিশুর

জরুরি ভিত্তিতে এক কোটি আফগান শিশুর মুখে খাবার তুলে দিতে হবে বলে জানিয়েছে ইউনিসেফ। একইসঙ্গে জাতিসংঘের ওয়ার্ল্ড ফুড প্রোগ্রামও বলছে, আফগানিস্তানে এই মুহূর্তে খাদ্য সহায়তায় ২০ কোটি ডলার লাগবে।

ইউনিসেফ আরও জানিয়েছে, আফগানিস্তানের শিশুরা এমনিতেই খাদ্য সহায়তার ওপর নির্ভর করে আছে। এমনকি এ বছর ১০ লাখ আফগান শিশু অপুষ্টিজনিত কারণে মারা যাওয়ার ঝুঁকিতে আছে।

ডব্লিউএফপি’র নির্বাহী পরিচালক ডেভিড বিসলি জানালেন, আফগানদের তিন ভাগের এক ভাগ, অর্থাৎ প্রায় ১ কোটি ৪০ লাখ মানুষ খাদ্য ঝুঁকিতে আছে। এর প্রধান কারণ টানা কয়েক বছরের খরা, দ্বন্দ্ব-সংঘাত ও কোভিডের কারণে অর্থনৈতিক বিপর্যয়।


ক্যারিয়ার সেরা র‌্যাঙ্কিং শাহীন আফ্রিদির

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে পাকিস্তানের দ্বিতীয় টেস্ট জেতার পেছনে বড় অবদান ছিল পেসার শাহীন আফ্রিদি ও ব্যাটসম্যান ফাওয়াদ আলমের। জ্যামাইকায় অসাধারণ নৈপুণ্যের পর তার স্বীকৃতি পেলেন টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ে। যা আবার তাদের ক্যারিয়ার সেরা র‌্যাঙ্কিংও!

শাহীন ৯৪ রানে প্রথমবার ১০ উইকেট নিয়েছেন। এই কীর্তিতে পেসারদের র‌্যাঙ্কিংয়ে দশ ধাপ এগিয়ে তিনি স্থান করে নিয়েছেন আট নম্বরে।