দাওয়াত খেয়ে ৩৪ জন হাসপাতালে

একুশে জার্নাল

একুশে জার্নাল

ফেব্রুয়ারি ০৩ ২০১৯, ১১:৫৩

বগুড়ার কাহালু উপজেলায় কুলখানির দাওয়াত খেয়ে ৩৪ জন ব্যক্তি অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তাদের চিকিৎসা চলছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।

এর মধ্যে কাহালু স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সাতজন ও নন্দীগ্রাম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২৭ জন ভর্তি রয়েছেন। খাদ্যে বিষক্রিয়ায় তারা ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে থাকতে পারেন বলে চিকিৎসকরা ধারণা করছেন।

নন্দীগ্রাম হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা অসুস্থ আব্দুর রউফ, মাহাবুর রহমান, শাহ আলম জানান, শনিবার কাহালু উপজেলার জামগ্রাম ইউনিয়নের চিরতা গ্রামে মরহুম আকতারুজ্জামানের কুলখানি অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে প্রায় তিন হাজার লোকজন কুলখানির খাওয়া-দাওয়া সেরে বাড়ি যান।

বাড়িতে এসে রোববার থেকে পেটে ব্যথা, ডায়রিয়া ও জ্বরে আক্রান্ত হয়ে অসুস্থ হতে থাকেন তারা। অবস্থা খারাপের দিকে গেলে তাদের ভর্তি করা হয় কাহালু ও নন্দীগ্রাম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন হাসপাতালে। রোববার ভোরে থেকে নন্দীগ্রাম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২৭ জন ব্যক্তি ভর্তি হয়েছেন।

জামগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলমগীর আলম কামাল বলেন, কুলখানির দাওয়াত খেয়ে অর্ধশতাধিক ব্যক্তি অসুস্থ হয়ে বিভিন্ন হাসপাতালে ও ক্লিনিকে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

কাহালু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আরাফাত রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, অসুস্থদের উন্নত চিকিৎসা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আমরা তাদের খোঁজখবর নিয়েছি।

নন্দীগ্রাম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. ইকবাল মাহমুদ বলেন, কুলখানির দাওয়াত খেয়ে ২৭ জন অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। খাদ্যে বিষক্রিয়ায় তারা ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে থাকতে পারেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি আমরা।