‘গুম’ শব্দটি আ.লীগ সরকারের আমলেই শুনেছি

একুশে জার্নাল ডটকম

একুশে জার্নাল ডটকম

আগস্ট ২৫ ২০২১, ১৭:৪৫

‘২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় তৎকালীন বিএনপি সরকার লাশ গুম করেছে’ এ ধরনের বিভ্রান্তিমূলক বক্তব্য দিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করতে পারবেন না উল্লেখ করে ক্ষমতাসীনদের উদ্দেশ্যে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, গুম শব্দটি আমরা তো আগে শুনিনি। এই আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে গুম কী ও কত প্রকার তা জানতে পেরেছি। আগে এই গুম শব্দটি পরিচিত ছিল না।

বুধবার (২৫ আগস্ট) দুপুরে ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটির মিলনায়তনে মানব সেবা সংঘের আয়োজনে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ৭৬তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, কাল একটা প্রোগ্রামে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য দিয়েছেন ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের লাশ তৎকালীন বিএনপি সরকার নাকি গুম করেছিলো; এই যে তিনি অদ্ভুত অদ্ভুত কথা বলেন। প্রতিদিন তিনি অদ্ভুত অদ্ভুত মিথ্যা কথা বলেন। গুম শব্দটি আমরা তো আগে শুনিনি। এই আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে গুম কী ও কত প্রকার তা জানতে পেরেছি। সুতরাং আগে এই গুম শব্দটি পরিচিত ছিল না। আপনার সরকারের আমলেই এ শব্দটি পরিচিত পেয়েছে। এবং অনেক ছাত্র মানবাধিকারকর্মী যারা অধিকার আদায়ের কথা বলে তারা গুম হয়েছে। সুতরাং ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় তৎকালীন বিএনপি সরকার লাশ গুম করেছে এ ধরনের বিভ্রান্তিমূলক বক্তব্য দিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করতে পারবেন না। দেশের জনগণ আপনার কথায় বিভ্রান্ত হয় না।

রিজভী বলেন, আপনি যে মিথ্যা বানোয়াট বিভ্রান্তমূলক বক্তব্য দেন এটা জনগণ সাথে সাথেই বুঝে। এরশাদের আমলে আপনি (শেখ হাসিনা) বলেছিলেন যারা এই সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে তারা জাতীয় বেঈমান কিন্তু ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আপনি তার সাথে নির্বাচনে গিয়েছিলেন। আর সেই থেকে জনগণ আপনার কথায় বিশ্বাস করে না।

রিজভী বলেন, এই ধরনের বিভ্রান্তিমূলক কথা তিনি (প্রধানমন্ত্রী) বলেন কেন? কারণ দেশে যে ব্যর্থতা এই ব্যর্থতা জনগণের দৃষ্টি অন্যদিকে ফেরানোর জন্যই তিনি এই ধরনের কথাবার্তা বলেন।

করোনার টিকা নিয়ে বিএনপির এই নেতা বলেন, করোনার ক্ষেত্রে, টিকার ক্ষেত্রে, বৈশ্বিক মহামারির ক্ষেত্রে আপনি (শেখ হাসিনা) সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ। আপনারা আওয়ামী লীগ একটা ক্ষেত্রে সফল দুর্নীতি ও আপনার নেতাদের পকেট ভারী করার ক্ষেত্রে এছাড়া অন্য কোন যোগ্যতা বা সফলতা আপনাদের নেই।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্দেশ্যে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, আজ কতদিন থেকে স্কুল-কলেজ বন্ধ অথচ এই বিষয়ে আপনার কোন বক্তব্য নেই। আজ বিশ্বে নানাভাবে শিক্ষার্থীদের শিক্ষার ব্যবস্থা করছে অথচ আপনি পারছেন না। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা বেকার হয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছ। আর আপনি শেখ হাসিনা একটার পর একটা অসত্য, বানোয়াট কথা বলে মানুষের দৃষ্টি অন্যদিকে নেওয়ার চেষ্টা করছেন।

বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, দেশের জনগণ বুঝতে পেরেছে দেশের জন্য, জনগণের জন্য কাজ করে দেশপ্রেমিক রাজনৈতিক দল বিএনপি। এবং এই দলের যিনি প্রধান তিনি কথা দিয়ে কথা রাখেন। তার পক্ষে জনগণ বিরোধী কোন কাজ করা সম্ভব নয়। এদেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনা এটা করেছেন শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান ও তার স্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া। তারপরে উন্নয়ন ও উৎপাদন যে অবদান সেই অবদান বেগম খালেদা জিয়ার নাম স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। এই নাম কোনভাবে মুছা যাবে না। এই নাম শেখ হাসিনা যেভাবে মোছার চেষ্টা করুক না কেন। বঙ্গোপসাগরের সমস্ত পানি দিয়ে মুছে ফেলার চেষ্টা করলেও কোনো লাভ হবে না।

সংগঠনের সভাপতি সঞ্জয় দে রিপনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবুল খায়ের ভূইয়া, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. রফিকুল ইসলাম, পল্লী উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক গৌতম চক্রবর্তী, নির্বাহী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট নিপুন রায় চৌধুরী প্রমুখ বক্তব্য দেন।