কুরআন না বুঝে পড়লেও সওয়াব– হাটহাজারীতে হাফিজুর রহমান সিদ্দিকী কুয়াকাটা

একুশে জার্নাল

একুশে জার্নাল

জুলাই ২৪ ২০১৯, ০০:৪০

ইবনে সালেহ, হাটহাজারী, চট্টগ্রামঃ- কোরঅান না বুঝে পড়লেও সওয়াব মিলবে। কোরঅানের দিকে তাকিয়ে থাকলেও সওয়াব। যারা বলে কোরঅান না বুঝে পড়লে শয়তান খুশি হয়, তারা অাসলেই শয়তানের দোসর।
উপরোক্ত বক্তব্য ২২জুলাই সোমবার চট্টগ্রামের হাটহাজারী বড়দিঘির পাড় হাজী রাজা মিঞা কোম্পানীর পরিবার কর্তৃক অায়োজিত বিশাল ওয়াজ মাহফিলের প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন খতিবুল উম্মাহ অাল্লামা হাফিজুর রহমান সিদ্দিকী [কুয়াকাটা]।

তিনি অারো বলেন, ধর্মীয় শিক্ষা এবং আধ্যাত্মিকতার অভাবে পশ্চিমাদের অাদর্শে বিভোর হয়ে মুসলিস সমাজে বিভ্রান্ত সৃষ্টির জন্যেই একটি গোষ্ঠী কিছুদিন পর পর কোরঅান সুন্নাহর পরিপন্থী কথা বার্তা বলে মুসলমানদের মাঝে ফিতনা সৃষ্টি করে।

চট্টগ্রামের হাটহাজারী বড়দিঘির পাড় হাজী রাজা মিঞা কোম্পানীর ইয়ার্ড এলাকায় খতিবুল উম্মাহ কুয়াকাটা হুজুরের মাহফিলে দিনের তিনটা থেকে মুসল্লীদের ঢল নামে। স্থানীয়রা বলেন, দিনের তিনটা বাজে মাহফিলে এতো মানুষ কখনো হয়না বা হয়নি। আগত লোকজন বলেন এটা কুয়াকাটা হুজুরের প্রতি তাঁর মা বাবার দোয়ার ফল।

২২জুলাই সোমবার চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী ব্যবসায়ী হাজী রাজা মিঞা সাহেব কর্তৃক অায়োজিত বিশাল এই মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, চট্টগ্রাম জিরি মাদরাসার মহাপরিচালক অাল্লামা শাহ তৈয়্যব সাহেব।
প্রধান মুফাস্সির হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন মুফাস্সিরে কোরঅান, খতিবুল উম্মাহ অাল্লামা হাফিজুর রহমান সিদ্দিকী [কুয়াকাটা]।

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ ঢাকার মাওলানা ওলি উল্লাহ, জিরি মাদারাসার মুহাদ্দিস মাওলানা হোসাইন অাহমদ, রাজা মিঞা সাহেবের ছাহেবজাদা মাওলানা মোরশেদ ও বড়দিঘির পাড় মাদরাসার শিক্ষক মাওলানা মুছা।

এছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, কাশেফুল ইসলাম মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা অামিরুল ইসলাম, বড় দিঘপর পাড় মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা রুহুল কাদের, খন্দকিয়া মাদানিয়া মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা কারী ইব্রাহিম এবং হামিউস্সুন্নাহ মাদরাসার মুহতামিম মোস্তাফা কাসেমী, ইসলামী অান্দোলন বাংলাদেশ ওমানস্থ সোহার মহানগর শাখার সভাপতি মাওলানা তৈয়্যব, শ্রমিক আন্দোলন চট্টগ্রাম উত্তর জেলার সভাপতি মুফতি আব্দুল আলী কারিমী, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মুহাম্মদ ফোরকান সিকদার এবং সাংবাদিক মাওলানা আজগর সালেহী প্রমুখ।