কালীগঞ্জে ডাকাতির শেষ কোথায়

জুনায়েদ হোসেন ফরহাদ, গাজীপুর

সারাদেশ জুড়ে মানুষ যখন করোনা ভাইরাস নিয়ে আতংকিত!ঠিক সেই মূহুর্তেই আবারও শুরু হয়েছে ডাকাতের উপদ্রপ।২৪ই মার্চ মঙ্গলবার ভোর ৫:১৫ মিনিটে নাগরী ইউনিয়ন এর নলছাটা এলাকায় G-20 এগ্রো লিমিটেড সংলগ্ন সড়কে একটি ডাকাতির ঘটনা ঘটে।ঘটনা জানার পর নাগরী বাজার কাচামালের ব্যবসায়ীদের মধ্য,আজিজুল কাজী নামের একজনের সাথে কথা বলে জানাযায়।মঙ্গলবার ভোরে তারা নাগরী বাজার থেকে গাজীপুর ভোগড়া (চৌরাস্তা) কাচামালের বাজারের উদ্দেশ্যে রওনা হলে,ভোর ৫:১৫ মিনিটে G-20 এগ্রো লিমিটেড সংলগ্ন সড়কে ডাকাতির শিকার হন তারা।ডাকাত দল সবুজ আলোকৃত লেজার লাইটের সিগন্যাল দিলে,পুলিশ ভেবে পিকাপ ভ্যান চালক মামুন গাড়ি থামিয়ে দেয়। ডাকাত দল তাদের উপর আক্রমণ করলে পরে বুঝতে পারে যে এরা পুলিশ নয় এরা ডাকাত!এ সময় ডাকাত দল ব্যাবসায়ীদের কাছ থেকে নগদ অর্থ ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়।ব্যাবসায়ী আজিজুল কাজীর কাছথেকে ৪০০০টাকা,হালিম এর কাছথেকে ৯০০০টাকা ও ১৫,০০০টাকা মূল্যের একটি মোবাইল ফোন,বাহার উদ্দিননের কাছথেকে ২৫,০০০টাকা,সেলিমের কাছথেকে ২৫,০০০টাকা ও একটি ১৫০০টাকা মূল্যের মোবাইল ফোন,কবির দাসের কাছ ৪,৫০০টাকা,প্রনয় দাসের কাছথেকে ৭,৫০টাকা,কায়েমের কাছথেকে ৪,৫০০টাকা,সায়েমের কাছথেকে ৫০০০টাকা ও ১,৫০০ টাকা মূল্যের মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয় ডাকাত দল।এ ছাড়াও ক্ষতিগ্রস্ত হয় টুটুল সাহা,মুনজুর ও শরীফ কাজী। পিকাপ ভ্যান চালক মামুনের সাথে কথা বলে জানাযায় ঘটনা স্থলের কাছে একটি বৈদ্যুতিক খুঁটিতে সিসিটিভি ক্যামেরার নিচেই ঘটনাটি ঘটে।সবুজ আলোকৃত লেজের লাইটের সিগন্যাল দেওয়াতে পুলিশ ভেবে সে গাড়ি থামায়।পরে ৫সদস্য বিশিষ্ট ডাকাত দল গাড়ি চেক করা হবে বলে ডাকাতি কার্যক্রম শুরু করে।এ সময় যে সকল ব্যাবসায়ীদের কাছে টাকা পাওয়া যায়নি তাদেরকে দেশীয় অস্র দিয়ে মারধোর করে।ঘটনার পর ঘটনা স্থল থেকে তারা নাগরী বাজারে ফিরে আসে এবং বাজার কমিটির সভাপতিকে বিষয়টি অবহিত করেন।এ ব্যাপারে উলুখোলা ফাড়ির ইনচার্জ আব্দুল বাছেদের সাথে কথা বলে জানাযায়,তারা সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার ভোর ৬টা পর্যন্ত টহলরত অবস্থায় ছিল কিন্তু ডাকাতির বিষয়ে কিছুই জানেনা।অতপর কালীগঞ্জ থানার (ওসি) এ কে এম মিজানুল হকের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন,এ ব্যাপারে এখনো পর্যন্ত আমরা কিছুই জানিনা,তবে যেহেতু এখন জানতে পেরেছি ঘটনা স্থল পরিদর্শন করে সত্যতা যাচাই করে আমরা ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।পরে বিকেলে (ওসি) ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।এখানে উল্লেখ্য থাকে যে,এর আগে কালীগঞ্জ থানাধীন উলুখোলা বাজার,সাওরাইদ বাজার,করান লালগালার ব্রিজ এলাকায় ডাকাতির ঘটনা ঘটে।তাই এখন জনমনে প্রশ্ন এর শেষ কোথায়?