করোনা আতঙ্কে থমকে গেছে সাতক্ষীরার কলারোয়া 

রেজওয়ান উল্লাহ,কলারোয়া প্রতিনিধি: বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হওয়ার পর হঠাৎ করেই সব কিছু বদলে গেছে।কলারোয়া উপজেলা অনেকটা থমকে গেছে। জনকোলাহল এড়িয়ে চলতে বলা হয়েছে। চার দিকে মানুষের চোখে মুখে সতর্কতার ছাপ। প্রভাব পড়েছে বাজারে। খেলার মাঠে। বিনোদন কেন্দ্রগুলো। নিত্যপণ্যের বাজারেও আতঙ্কের ছায়া। স্থগিত হয়েছে ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠান।কলারোয়ার পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে আসছেন না কোন পর্যটকরা। করোন মোকাবেলায় ঝাপিয়ে পড়েছে কলারোয়া উপজেলা প্রশাসন ও কলারোয়া থানা পুলিশ। বন্ধ করে দিয়েছে উপজেলার সব কয়টি পর্যটন কেন্দ্র, সিনেমা হল, গণ জামায়ত, ওয়াজ মাহফিল, নামযজ্ঞসহ সকল প্রকার ধর্মীয় অনুষ্ঠান। নিজের পরিবারের সুরক্ষায় মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, হ্যান্ডওয়াশ কিনতে ভিড় করছেন দোকানে। কেউ পাচ্ছেন, কেউ পাচ্ছেন না। গণপরিবহনে যাত্রী তুলনামূলক কম। যারা যাচ্ছেন, তাদের অনেকের মুখে মাস্ক। ব্যাংকসহ আর্থিক প্রতিষ্ঠানে কমেছে ভিড়। হাসপাতালে আসা রোগী ও স্বজনরা সতর্ক। বাজারে আসা ক্রেতারাও চলছেন সতর্ক হয়ে। বন্ধ হয়ে গেছে সন্ধ্যার পর আড্ডা বিলাসী মানুষের চলাফেরা। এদিকে গতকালের চেয়ে কলারোয়ার ব্যস্ততম এলাকা, উপজেলা পরিষদ মার্কেট, বাসটার্মিনাল, শপিং মল, গণপরিবহনে অন্য দিনের চেয়ে কম সমাগম দেখা গেছে। পথে চলাচল করা সাধারণ মানুষের মাঝে সতর্কতার চিত্র দেখা গেছে।

অনেকের মুখে ছিল করোনার আলোচনা।পথচারীদের অনেককে মুখে মাস্ক ব্যবহার করতে দেখা যায়। এদিকে সবকিছু বন্ধ হয়ে যাওয়াতে বিপাকে পড়েছে কলারোয়া উপজেলার খেঁটে খাওয়া কৃষক, শ্রমিক ও ভ্যানচালকরা। ভ্যান চালক আজিজ হোসেন জানান করোনা ভাইরাস নিয়ে সব কিছু বন্ধ হয়ে গেছে, বিপদে পড়েছি আমরা, সারাদিন ভ্যান চালিয়ে যে কয় টাকা উপার্জন করি সমিতিকে কি দেব আর আমি কি খাবো। এদিকে কলারোয়া নির্বাহী অফিসার আর এম সেলিম শাহনেওয়াজের নেতৃত্বে কলারোয়া বারবার বাজারের নিত্যপ্রয়োজনীয় মূল্যের তদারকিসহ মানুষকে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করে ও মাইকিং করে সাধারণ জনগণকে সাবধান করছে। আজ ২৫ (মার্চ) বুধবার সকালে কলারোয়া থানা পুলিশকে সাথে নিয়ে সমস্ত বাজার পায়ে হেঁটে মানুষের সাথে অপ্রয়োজনীয়’ দোকানপাট ও চায়ের দোকান বন্ধ করার নির্দেশ দেন, আর বাজারে চলাচলকারি মানুষকে বলেন আপনারা সবাই সচেতন থাকবেন, নিয়মিত সাবান ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করবেন। আপনার সবাই ভালো থাকলে আমরা ভালো থাকবো। কলারোয়া উপজেলা চেয়ারম্যানসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ ও মানব সেবা সংগঠনের কর্মীরা লিফলেট, মাক্স, ও মাইকিং সহ বিভিন্ন সচেতন মূলক কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ করছে।