একাকিত্বের সংসার – রুবাইদা গুলশান

চা’য়ের কাপে উষ্ণ ধোঁয়ার কুন্ডলী মিশছে ওই আকাশটাতে, বাতাসে ভেসে আসে মৃদু ফুলের ঘ্রাণ। তুমি কি পাও, সেই সুগন্ধির একটু ছোঁয়া!

যেন আমি ছুঁয়ে যাই, সেই অখন্ড অবসর।

জানালার গ্রিলে ঠেকাই মাথা, হেঁটে চলি সেই শিউলি ঝরা পথ দিয়ে। মাথার উপর টুপ করে খসে পড়ে ফুল। হেসে ওঠি আমি!

ভরিয়ে নিই শিউলির রঙে আমার ভালোলাগা।

ট্রেনের শব্দ নেই, শহরের আলো নিভু নিভু।

বসে আছি, তুমি এলে দু’জনে মিলে দেখতাম, বলো তো কী?

উড়ছে ঘুড়ি মস্ত ওই আকাশটাতে!

ডানে, বায়ে, এই তো নেমে এলো যেন তোমার কাছে।

জানো, ঘুড়ি যখন আকাশে ওড়ে দূর থেকে কেবল ঘুড়িকেই দেখা যায়,সুতো নয়।

তুমি কি একটু আসবে এদিকটা’য়!

একলা আকাশ বলো তো, একা একা আর কত কথা কইবে! বাহিরে শান্ত পৃথিবী, অথচ আমার ভেতরে রঙের মিছিল,

তোমাকে কাছে পেয়েও না পাওয়ার একাকিত্বের সংসার।