আ-ফ-গা-ন সীমান্তে পাকিস্তানের সেনা মোতায়েন

একুশে জার্নাল ডটকম

একুশে জার্নাল ডটকম

জুলাই ২৯ ২০২১, ০৫:০৫

আফগানিস্তানের সঙ্গে সীমান্তের একেবারে সম্মুখভাগে সেনা মোতায়েন করেছে পাকিস্তান। প্রতিবেশি দেশটিতে সহিংসতা হুমকি এবং সেখান থেকে নতুন করে শরণার্থী সমাগমের শঙ্কায় এ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ রশিদ আহমেদ স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমে জানিয়েছেন, ফ্রন্টেয়ার কনস্টেবিলিটি (এফসি), লেভিস ফোর্স, র‌্যাঞ্জারস এবং অন্যান্য বাহিনীকে সেনাবাহিনীর জায়গায় সামনের সারির অবস্থানে প্রতিস্থাপন করা হয়েছে। তারা পাক-আফগান সীমান্তে পাহারা দিচ্ছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও জানিয়েছেন, ‘আধাসামরিক বাহিনীকে প্রতিস্থাপনের পর এখন নিয়মিত সেনাবাহিনীরা সীমান্ত নিয়ন্ত্রণ করছে।’ সীমান্ত অঞ্চলজুড়ে বর্তমান সহিংস পরিস্থিতির প্রেক্ষাপটে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এই আধাসামরিক বাহিনী অবৈধ সীমান্ত পারাপার এবং চোরাকারবারের মতো ইস্যুগুলোর দায়িত্বে থাকবে।

তালেবানরা আফগানিস্তানের জেলাগুলোর অর্ধেকই নিয়ন্ত্রণ করছে এবং তারা ‘কৌশলগতভাবে এগিয়ে যাচ্ছে’ যুক্তরাষ্ট্রের একজন শীর্ষস্থানীয় জেনারেলের এমন মন্তব্যের পরপরই পাকিস্তানের পক্ষ থেকে এ ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া হলো। তালেবানদের মুখপাত্র জানিয়েছেন, আফগানিস্তানের সীমান্ত অঞ্চলগুলোর ৯০ শতাংশই এখন তাদের দখলে, যদিও আফগান সরকার এ দাবি প্রত্যাখান করেছে।

যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তানের সঙ্গে পাকিস্তানের সবচেয়ে দীর্ঘতম সীমান্ত রয়েছে। এ অবস্থায় পাকিস্তান এই মুহুর্তে দুটি হুমকির মধ্যে রয়েছে- একটি সন্ত্রাসবাদ এবং অন্যটি শরণার্থীদের অনুপ্রবেশ।

পাকিস্তানের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা ড. মুইদ ইউসুফ আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেছেন, ‘তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তানের (টিটিপি) মতো নিষিদ্ধ সন্ত্রাসী দলের সদস্যরা শরনার্থীর ছদ্মবেশে আফগানিস্তান থেকে পাকিস্তানে প্রবেশ করতে পারে।’

বালুচিস্তানের চামান এবং খাইবার পাখতুন খাওয়ার তুর্কহাম সীমান্ত পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের মধ্যে প্রবেশের প্রধান দুটি সীমান্ত। পাশাপাশি এ সীমান্ত দুটি ছোটখাট বাণিজ্যও সম্পাদিত হয়।

সূত্র : গালফ নিউজ