আবরার হত্যার প্রতিবাদে ভোলায় ইশা ছাত্র আন্দোলনের মানববন্ধন

একুশে জার্নাল

একুশে জার্নাল

অক্টোবর ০৯ ২০১৯, ১৫:৪৪

মিজানুর রহমান, ভোলা প্রতিনিধি: বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে বুধবার (৯ অক্টোবর ‘১৯ইং) ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন ভোলা জেলা উত্তর শাখার উদ্যোগে দুপুর ১২ টায় কে জাহান মার্কেটের সামনে জেলা সভাপতি মুহা. সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ আবুল হাশেমের পরিচালনায় এক বিশাল মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর ভোলা জেলা উত্তর শাখার
সিনিয়র সহ-সভাপতি মাও. মুহাম্মদ মিজানুর রহমান।
প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, আবরার ফাহাদ হত্যা কোন স্বাভাবিক হত্যাকান্ড নয়, বরং এটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড। দল বেঁধে সময় নিয়ে একজন মানুষকে ঠান্ডা মাথায় পিটিয়ে হত্যা করতে হলে কতটা নরপশু হতে হয় তা আমাদের বোধগম্য নয়। আমরা এ হত্যাকান্ডে জড়িত খুনীদের মৃত্যুদন্ড দাবী করছি।

তিনি আরো বলেন, সরকার অবৈধভাবে ক্ষমতায় এসে ক্ষমতা টিকিয়ে রাখার জন্য ছাত্রলীগকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মত পবিত্র স্থানে অন্যমতের অন্য আদর্শের নিরীহ ছাত্রদেরকে নির্মমভাবে টর্চার করেছে। ছাত্রলীগের আচরণ দেখলে মনে হয় সরকার ছাত্রলীগকে লাইসেন্স দিয়েছে।
এসময় তিনি সরকারের কাছে দাবী জানান, অনতিবিলম্বে আবরার ফাহাদ হত্যার ক্ষুনিদের মৃত্যুদন্ড দেওয়া হউক, যদি তা না করা হয় তাহলে এদেশের ছাত্রসমাজ ক্ষেপে উঠবে ইনশাআল্লাহ।
তিনি আরো বলেন, আমার এই জন্মভূমি বাংলাদেশকে নিয়ে কোন ষড়যন্ত্র করলে প্রয়োজনে পীর সাহেব চরমোনাইর নেতৃত্বে এদেশের লাখো মানুষ আবারো দেশ মুক্তির আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়বে ইনশাআল্লাহ।

ছাত্র আন্দোলনের জেলা সভাপতি মুহা.সাইফুল ইসলাম বলেন , বাংলাদেশে যেকোন হত্যাকান্ডের পর নিহত ব্যক্তির কল্পিত রাজনৈতিক পরিচয়কে সামনে এনে পশুসুলভ হত্যাকান্ডকেও নৈতিকভাবে সমর্থন করা হয়। আবরার ফাহাদের হত্যাকান্ডকেও এরূপ নৈতিক সমর্থন দেয়ার অপচেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু আজ জাতির সামনে প্রকাশ্য দিবালোকের ন্যায় স্পষ্ট যে, এই হত্যাকান্ড ছিল বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের পরিকল্পিত একটি হত্যাকান্ড। ছাত্রলীগের লাগাম এখনই টেনে না ধরলে এরা বাংলাদেশের জন্য কাল হয়ে দাঁড়াবে বলে মন্তব্য করেন বক্তারা।

মানববন্ধনে আরো বক্তব্য রাখেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ভোলা জেলা উত্তর শাখার সহ-সভাপতি মাও. মুহাম্মদ তাজউদ্দিন ফারুকী, জয়েন্ট সেক্রেটারি মাও.মুহাম্মদ তরিকুল ইসলাম, ভোলা-২ আসনের সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী মাও.এম ওবায়েদ বিন মোস্তফা, জেলা ছাত্র আন্দোলনের প্রশিক্ষণ সম্পাদক মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, অর্থ সম্পাদক মুহাম্মদ ইসমাইল হোসেন, কলেজ সম্পাদক মুহাম্মদ ফিরোজ আহমদ, স্কুল সম্পাদক মুহাম্মদ আবু রায়হান, সদস্য মুহাম্মদ আল আমিন সহ প্রমূখ নেতৃবৃন্দ।

একুশে জার্নাল/ইএম