আফগানিস্তানকে স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্র ঘোষণা তালেবানের

একুশে জার্নাল ডটকম

একুশে জার্নাল ডটকম

আগস্ট ৩১ ২০২১, ১৩:৫৬

যুক্তরাষ্ট্রের সেনাদের বহন করা শেষ ফ্লাইট কাবুল বিমানবন্দর ছাড়ার পর আফগানিস্তানকে স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে দেশটির ক্ষমতা দখল করা সশস্ত্র গোষ্ঠী তালেবান। খবর আল-জাজিরার।

চুক্তি অনুযায়ী আজ ৩১ আগস্ট (মঙ্গলবার) যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা দেশগুলোর সেনারা আফগানিস্তান ছেড়েছে। প্রায় দুই দশক পর বিদেশি সেনাদের নিয়ন্ত্রণমুক্ত হয়েছে কাবুল।

তালেবান দিনটিকে ঐতিহাসিক উল্লেখ করে বলেছে, আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের ভয়াবহ এ পরাজয় বিশ্বের মোড়ল দেশগুলোর জন্য শিক্ষা। ভবিষ্যতে কোনো দেশ ‘ঠুনকো’ অভিযোগে যেন স্বাধীন ও সার্বভৌম কোনো রাষ্ট্রে হস্তক্ষেপ না করে, সেই আশা তালেবানের।

তালেবানের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়, আফগানিস্তান এখন স্বাধীন এবং সার্বভৌম রাষ্ট্র। ২০ বছরের যুদ্ধের অবসান ঘটিয়ে মার্কিন সেনাদের আফগানিস্তান ছাড়ার ঘটনা ঐতিহাসিক এক মুহূর্ত।

এদিন তালেবানের মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ কাবুল বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘এটা নিঃসন্দেহে আফগানদের জন্য ঐতিহাসিক মুহূর্ত। আজ থেকে ইসলামিক এমিরেটস অব আফগানিস্তান পূর্ণাঙ্গ স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্র। আজকের এ বিজয় সব আফগানদের।’

তিনি বলেন, ‘আফগানিস্তানে আমেরিকা পরাজিত হয়েছে। আমরা প্রতিজ্ঞা করছি, আমাদের স্বাধীনতা ও ইসলামিক মূল্যবোধ রক্ষা করবো। এখন জাতির পক্ষ থেকে আমরা বাকি বিশ্বের সঙ্গে সুসম্পর্ক রাখতে চাই।’

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, মঙ্গলবার তালেবান যোদ্ধারা কাবুলের হামিদ কারজাই বিমানবন্দরের দায়িত্বভার বুঝে নিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের সেনারা তাদের কাছে দায়িত্ব বুঝিয়ে দিয়ে শেষ ফ্লাইটে কাবুল ছেড়েছে। বিজয় উদযাপনে কাবুলের আকাশে আতশবাজি এবং ফাঁকা গুলি ছুড়তে দেখা গেছে।

এর আগে, মার্কিন কেন্দ্রীয় কমান্ডের প্রধান মেরিন জেনারেল ফ্রাঙ্ক ম্যাককেঞ্জি জানিয়েছিলেন, স্থানীয় সময় ৩০ আগস্ট মধ্যরাতে শেষ দফায় মার্কিন সেনাদের বহন করা ফ্লাইট কাবুল থেকে ছেড়ে যাবে।

তিনি বলেছিলেন, ‌‘আমরা সবাইকে বের করতে পারিনি। আমরা ধারনা, যদি আমরা আরও ১০ দিন এখানে থাকি, তবুও সবাইকে বের করতে পারবো না।’

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ঘোষণা করেছিলেন, আগস্টের ৩১ তারিখের মধ্যেই আফগানিস্তান থেকে দেশটির সব সামরিক-বেসামরিক লোকদের সরিয়ে নেবে যুক্তরাষ্ট্র। সেই ঘোষণা অনুযায়ী আমেরিকা নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাবুল ছাড়লো।